প্রশাসনিক নয়, নির্বাচনী সভা করছেন মুখ্যমন্ত্রী: দিলীপ ঘোষ 

জে মাহাতো, আমাদের ভারত, মেদিনীপুর, ৩ অক্টোবর:
খড়্গপুরে ৬ অক্টোবর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সভাকে কটাক্ষ করে শনিবার সকালে দিলীপ ঘোষ বলেন, উনি প্রশাসনিক সভা নয় চারদিকে নির্বাচনী সভা করে বেড়াচ্ছেন এবং সভা থেকে নানা রকম প্রতিশ্রুতি ঘোষণা করছেন। শুক্রবার বিকালের পর সবং ব্লকের বুড়ালে এক সভায় যোগ দিয়ে তিনি খড়্গপুরে রাত কাটান। শনিবার সকালে প্রাতঃভ্রমণে বেড়িয়ে তিনি আরও বলেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আসলে কাউকে বিশ্বাস করেন না, তাই নিজেই দৌড়ে বেড়াচ্ছেন। আসলে উনি বুঝতে পারছেন না যে মানুষ এখন আর তাকে বিশ্বাস করেন না।

খড়্গপুরে বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দেওয়া প্রসঙ্গে বিজেপির রাজ্য সভাপতি বলেন, বিজেপির কোনও কার্যকর্তা তৃণমূলে যেতে পারেন না। যদি কেউ গিয়ে থাকেন তাহলে বুঝতে হবে তৃণমূলের উচ্ছিষ্ট খেতেই গিয়েছেন। দিলীপ ঘোষ বলেন, একটা পক্ষ থেকে প্রচার করা হচ্ছে খড়্গপুরে নাকি বেশকিছু কার্যকর্তা তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন। তবে কার্যকর্তা হিসেবে আমি একজনকে জানি। সে বিজেপির পুরনো কর্মী। পুলিশ তাকে ভয় দেখিয়ে তৃণমূলে যোগ দিতে বাধ্য করেছে। দীলিপবাবু বলেন, প্রতিটি সভাতে এত মানুষ বিজেপিতে যোগদান করছে যে তাদের জায়গা দেওয়া যাচ্ছে না।

কৃষি আইন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, কেন্দ্রীয় কৃষি আইনের বিরুদ্ধে তৃণমূল চিল চিৎকার করে মানুষকে ভুল বোঝাচ্ছে। আমরা কৃষকদের কাছে কৃষি বিলের উপকারিতার কথা তুলে ধরছি। এই কৃষি বিল সত্তর বছর পর কৃষকদের মুক্তির পথ দেখাবে। ধানের সহায়ক মূল্য ১৮৮৫ টাকা করেছে কেন্দ্র সরকার। কিন্তু এই বাংলায় চাষিরা আলু বিক্রি করছে পাঁচ টাকায়। আর সেই আলু কিছুদিন পরেই পঁচিশ ত্রিশ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। মাঝখানের কুড়ি পঁচিশ টাকা দিদির ভাইদের পকেটে ঢুকছে এটা সবাই জানে। আলুর বন্ড এরাজ্যে কৃষকরা পায় না, নেতারা সব বন্ড  কিনে নেন এবং ইচ্ছে করেই হিমঘর থেকে আলু না বের করে কালোবাজারি চালাচ্ছে।

দিলীপ ঘোষ সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে বলেন, উত্তরপ্রদেশের ঘটনা খুব বড় করে দেখানো হচ্ছে হোক কিন্তু দিঘা, চোপাড়া, দক্ষিণ দিনাজপুর সহ বাংলায়। মহিলাদের একের পর এক ধর্ষণ করে খুন করা হয়েছে, সেগুলো যতটা সম্ভব চাপা দেওয়ার চেষ্টা করা হয়েছে। দিদির ভয়ে মিডিয়া মুখ খুলতে পারেনি এবং সেই সব ঘটনার কোনও বিচার নেই। বিজেপি কর্মীরা প্রতিবাদ করলেই তাদের মেরে গাছে ঝুলিয়ে দেওয়া হচ্ছে। দিলীপ ঘোষ বলেন, উত্তরপ্রদেশের দোষীদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেওয়া হবে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here