রাজ্যে নথিপত্র স্ক্যানের জন্য নতুন অ্যাপ ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর, টলিউডের জন্যও একগুচ্ছ ছাড়পত্র

রাজেন রায়, কলকাতা, ৬ জুলাই: দেশে ৫৯টি চিনা অ্যাপ নিষিদ্ধ করে ইতিমধ্যেই ডিজিটাল স্ট্রাইকের ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী। এই পরিস্থিতিতে রাজ্যে নথিপত্র স্ক্যান করার জন্য রাজ্য সরকারের তথ্যপ্রযুক্তি দফতরের তরফে নয়া অ্যাপের কথা ঘোষণা করে চমক দিলেন মুখ্যমন্ত্রী। অ্যাপটির নাম দেওয়া হয়েছে ‘সেলফ স্ক্যান’। একইসঙ্গে টলিউডে আউটডোর শুটিং সহ বিভিন্ন ছাড় এবং সাহায্যের কথা ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী।

বর্তমানে সকলেরই বিভিন্ন কাগজপত্র স্ক্যান করে ডিজিটাল মাধ্যমে দ্রুত পাঠানো দরকার হয়ে পড়ে। লকডাউন এর প্রয়োজনীয়তা আরো বহুগুণ বেড়েছে। নতুন এই অ্যাপটিতে সম্পূর্ণ বিনামূল্যে নথিপত্র স্ক্যান করা যাবে। রাজীব কুমার কলকাতা পুলিশ কমিশনার থাকাকালীনই সাইবার বিভাগে বিভিন্ন গঠনমূলক পদক্ষেপ নিয়েছিলেন। তার সেই বিচক্ষণতাকে কাজে লাগিয়েই নতুন অ্যাপটি তৈরি করা হয়েছে বলে জানান মুখ্যমন্ত্রী।

এই অ্যাপে কী কী সুবিধা মিলবে, সেই ব্যাখ্যাও দেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন,’এখন যে অ্যাপগুলি পাওয়া যায়, তার থেকে রাজ্যের নয়া অ্যাপ অনেক বেশি উন্নত, সুবিধাজনক এবং সুরক্ষিত। এটিতে স্ক্যান করা, নথি এডিট করা যায়। এখানে ব্যবহৃত কোনও নথি বা তথ্য সার্ভারে জমা হয় না। তাই এটা পুরোপুরি সুরক্ষিত, একদম ব্যক্তিগত এবং নিরাপদ অ্যাপ। এটি একদম ফ্রি এবং কোনও বিজ্ঞাপন নেই।

এছাড়াও টলিউড নিয়েও এদিন বড় ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। এদিন নবান্নে প্রথমে তিনি টলিউডে কলাকুশলীদের সঙ্গে একটি বৈঠক করেন। সেই বৈঠকে হাজির ছিলেন বিভিন্ন টিভি চ্যানেল কর্তৃপক্ষ এবং অভিনেতা ও কলাকুশলীদের সংগঠনের প্রতিনিধিরা। ছিলেন মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস এবং রাজ্যের মুখ্যসচিব রাজীব সিনহা।

তারপরেই পুলিশ ও প্রশাসনের অনুমতিতে সর্তকতার সঙ্গে আউটডোর শুটিংয়ের ছাড়পত্র সহ আরও একাধিক ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, এখন থেকে ৩৫-এর জায়গায় ৪০ জনকে শ্যুটিং করা যাবে। একই সঙ্গে শুরু করা যাবে রিয়্যালিটি শোয়ের শ্যুটিং। তবে সেক্ষেত্রে দর্শকের ভিড় রাখা যাবে না। দরকার হলে এডিটের সময়ে পুরনো শ্যুটিং থেকে দর্শকাসনের ছবি লাগিয়ে দেওয়া হোক। চেষ্টা করতে হবে ইনডোর শ্যুটিংয়েই আউটডোরের কাজ যতটা সম্ভব মিটিয়ে নেওয়া। সেট এমন করে বানাতে হবে যা দিয়ে আউটডোরের কাজ মিটিয়ে ফেলা যায়।

কেন্দ্র অনুমতি না দিলে সিনেমা হল খোলা যাবে না। আর রাজ্য সরকার বর্তমান আর্থিক পরিস্থিতিতে কর বা বিদ্যুতে ছাড় দিতে পারবেন না। তবে ঘূর্ণিঝড় আমমফানে কোনও সিঙ্গল স্ক্রিন সিনেমা হল ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে থাকলে প্রয়োজনীয় সাহায্যের জন্য রাজ্যের কাছে আবেদন করা যেতে পারে। আগামী দিনে অভিনেতা, অভিনেত্রী থেকে কলাকুশলীদের স্কিল ডেভেলপমেন্টের জন্য তৈরি হবে গ্রুমিং সেন্টার। টলিউডের সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে এই সেন্টার তৈরি করবে রাজ্য সরকার। এদিন ওয়েব সিরিজের জন্যও একটি কমিটি গঠন করে দেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সোমবার নবান্নে তিনি বলেন, অভিনেতা পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়, পরিচালক রাজ চক্রবর্তীদের নিয়ে এই কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটিতে থাকবেন রাজ্যের মুখ্যসচিব রাজীব সিনহা। বিতর্ক এড়িয়ে আগামী দিনে কীভাবে আরও ভাল ভাবে ওয়েব সিরিজ তৈরি করা যেতে পারে তার লক্ষ্যে এই কমিটি কাজ করবে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here