দিল্লির বছর ৩০ এর যুবকের দেহে প্রথম কোভ্যাক্সিনের প্রথম ডোজ দেওয়া হল

আমাদের ভারত, ২৫ জুলাই: বিশ্বের একাধিক দেশ করোনার টিকা তৈরিতে তৎপর। পিছিয়ে নেই ভারতও। তার মধ্যে শুক্রবার দেশে করোনার টিকা গবেষণায় বড় পদক্ষেপ করল ভারত। গতকাল থেকে শুরু হয়েছে করোনার সম্ভাব্য টিকার হিউম্যান ট্রায়াল। দিল্লির এমসে বছর তিরিশের এক যুবকের দেহ ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ দেওয়া হয়েছে। তার ফলের উপর নজর রেখেই স্থির হবে পরীক্ষার পরবর্তী ধাপ।

করোনার টিকা তৈরীর চেষ্টা করছে বহু দেশ। তাতে সামিল হায়দ্রাবাদের সংস্থা ভারত বায়োটেক। প্রাথমিক পরীক্ষায় আশা জাগিয়েছে ভারত বায়োটেকের এই কোভ্যাকসিন। শুক্রবার এমসে ৩০ বছরের এক যুবকের দেহে ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছে। এই পর্যায়ে মোট ১০০ জন স্বাস্থ্যবান ব্যক্তিকে টিকা দেওয়া হবে।

স্বেচ্ছাসেবক বাছাই পর্ব আগেই সাড়া হয়েছে। প্রথমে ১২ জন স্বেচ্ছাসেবককে ডাকা হয়। একাধিক পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর ১০ জনকে বেছে নেওয়া হয়েছে। আপাতত দুটি ধাপে শেষ হবে এই হিউম্যান ট্রায়াল।

দিল্লির এই বাসিন্দার দুদিন আগে একাধিক শারীরিক পরীক্ষা করা হয়েছিল। তিনি সুস্থ এবংস্বাভাবিক। তার অন্য কোনো অসুস্থতার নেই। তাকে ০.৫ মিলিমিটার এর প্রথম ডোজ দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন এমসের কমিউনিটি মেডিসিনের অধ্যাপক তথা প্রধান গবেষক সঞ্জয় রাই। এর কোনো ক্ষতিকারক প্রভাব আপাতত এই ব্যক্তির শরীরে দেখা যায়নি বলেও সূত্রের খবর।

আগামী সাত দিন ঐ যুবকের উপর নজর রাখা হবে। টিকার প্রথম ডোজ কেমন কাজ করছে তা খতিয়ে দেখার পরই শুরু হবে পরীক্ষার পরবর্তী পর্যায়। পরীক্ষার জন্য প্রথম ধাপে বেছে নেওয়া হয়েছে ১৮ থেকে ৫৫ বছর বয়সী স্বাস্থ্যবান ব্যক্তিদের। এর মধ্যে অনেকে মহিলাও রয়েছেন।

প্রথম ধাপের ফল সঠিক হলে পরের ধাপে ৭৫০ জনের ওপর দ্বিতীয় পর্যায়ের ট্রায়াল শুরু হবে। তাদের মধ্যে থাকবেন ১২ থেকে ৬২ বছরের বয়স্করা। ইতিমধ্যে ১৮০০ জন স্বেচ্ছাসেবক পরীক্ষার জন্য নিজেদের নাম নথিভুক্ত করেছেন।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here