ভারতের তৈরি করোনা ভ্যাকসিনেরও ট্রায়াল শুরু হয়ে গেল

আমাদের ভারত, ২৪ জুলাই:ভারতের প্রথম করোনা প্রতিষেধক কোভ্যাক্সিনের ট্রায়াল শুরু হলো আজ থেকে। শুক্রবার নতুন দিল্লির এমসে পাঁচজন স্বেচ্ছাসেবকের উপরে ভ্যাকসিন প্রয়োগ করা হয়েছে বলে জানা গেছে। এদের মধ্যে ৩০ বছরের এক ব্যক্তির শরীরে এটি প্রথম প্রয়োগ করা হয়।

ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অফ মেডিকেল রিসার্চের সঙ্গে গাঁটছড়া বেঁধে ভারতবাসী ভ্যাকসিন তৈরি করছে। এই ভ্যাকসিন ট্রায়ালে অংশ নিতে ইতিমধ্যেই ৩৫০০ জন স্বেচ্ছাসেবক নিজেদের নাম নথিভুক্ত করেছেন। প্রথম দফায় প্রায় ১০০ জন ব্যক্তির উপর এই ভ্যাকসিন প্রয়োগ করা হবে বলে জানা গেছে।

তবে একেবারে প্রথমে ১০ জনকে এই ভ্যাকসিন দেওয়া হবে। পুরো ব্যাপারটির নেতৃত্বে আছেন চিকিৎসক সঞ্জয় রায়।

তিনি জানিয়েছেন যে ১০ জনের উপর ভ্যাকসিন প্রয়োগ করা হবে। তার ফলাফল খতিয়ে দেখবে হাসপাতালে এথিক্স কমিটি। ভ্যাকসিন আদৌ সুরক্ষিত কিনা তাই খতিয়ে দেখা হবে। সুরক্ষা সংক্রান্ত মানদন্ডের যদি উতড়ে যায় এই ভ্যাকসিন তাহলে অন্যদের উপর প্রয়োগ করা হবে।

যে স্বেচ্ছাসেবীরা ভ্যাকসিন ট্রায়ালের জন্য এগিয়ে এসেছেন তাদের ইতিমধ্যেই নানা স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হয়েছে। ট্রায়ালের জন্য তারা উপযুক্ত কিনা তা নিশ্চিত হতে ডায়াবেটিস, হাইপারটেনশন, হার্টের সমস্যা, কিডনি বা লিভারে মত সমস্যা রয়েছে কিনা, সেরকম প্রায় ৫০ ধরনের টেস্ট করা হয়েছে স্বেচ্ছাসেবীদের।

যারা এই পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন তাদেরকেই ভ্যাকসিন ট্রায়ালের জন্য বেছে নেওয়া হয়েছে। কোভ্যাক্সিনের ট্রায়ালের জন্য আইসিএমআর মোট ১২টি মেডিকেল প্রতিষ্ঠানকে বেছে নিয়েছে।

অন্যদিকে অক্সফোর্ডের করোনা টিকা নিয়েও ইতিমধ্যে আশার আলো দেখা গেছে। এই টিকার তৃতীয় দফার হিউম্যান ট্রায়াল চলছে। ভারতেও এই টিকার হিউম্যান ট্রায়াল চালানো হবে। সেরাম ইনস্টিটিউ আগে থেকেই অক্সফোর্ডের অ্যাস্ট্রোজেনিটিকের সঙ্গে চুক্তি করে রেখেছে। সব পরীক্ষায় পাস করলে এর উৎপাদন শুরু করবে সেরম। এই ভ্যাকসিনের নাম রাখা হয়েছে কোভশিল্ড। আগস্ট মাস থেকে ভারতেও এই ভ্যাকসিনের ট্র্যায়াল শুরু করার ভাবনা রয়েছে সেরামের।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here