সাম্প্রদায়িক তোষণের জন্যই চিকিৎসক নিগ্রহে চুপ মমতা, অভিযোগ মুকুল রায়ের

সাম্প্রদায়িক তোষণের জন্যই চিকিৎসক  নিগ্রহে চুপ মমতা, অভিযোগ মুকুল রায়ের

চিন্ময় ভট্টাচার্য

আমাদের ভারত, ১২ জুন: স্রেফ সাম্প্রদায়িক তোষণের রাজনীতি। সেই জন্যই এনআরএসে চিকিৎসককে মারধর করা হলেও চুপ থেকেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। লোকসভা নির্বাচনে যে সাম্প্রদায়িক তোষণের বিরুদ্ধে রায় দিয়ে বাংলার মানুষ বিজেপিকে ১৮ আসনে জয়ী করেছে, সেই সাম্প্রদায়িক তোষণ এরাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী কোনওমতেই ছাড়তে নারাজ। দলের রাজ্য দপ্তরে বসে কার্যত এমনই অভিযোগ করলেন মুকুল রায়। একইসঙ্গে আন্দোলনরত চিকিৎসকদের প্রতি সহানুভূতির কথাও তিনি কার্যত স্পষ্ট করে দিয়েছেন।

ইতিমধ্যে, এনআরএস-কাণ্ডের আঁচ গোটা রাজ্যে ছড়িয়ে পড়েছে। চিকিৎসক নিগ্রহের প্রতিবাদে কর্মবিরতির ডাক দিয়েছে রাজ্যে চিকিৎসকদের ছ’টি সংগঠন। যার জেরে সরকারি এবং বেসরকারি হাসপাতালগুলোয় চিকিৎসা পরিষেবায় তৈরি হয়েছে অচলাবস্থা। হাসপাতালের আউটডোর ছাড়া কোনও বিভাগ কার্যত সেই অর্থে আর সচল নয়। যার ফলে নাজেহাল হতে হচ্ছে রোগীদের।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্যের স্বাস্থ্য দপ্তরকে নিজের হাতেই রেখেছেন। স্বভাবতই রোগীদের এই হেনস্তার দায় তিনি অস্বীকার করতে পারেন না। সাধারণত, স্বাস্থ্য ক্ষেত্রে কোনও সমস্যা তৈরি হলে অতীতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে দ্রুত ব্যবস্থা নিতে দেখা গিয়েছে। কিন্তু, এক্ষেত্রে তিনি যেভাবে হাল ছেড়ে বসে রয়েছেন, তা নজর এড়ায়নি রাজ্য বিজেপি নেতৃত্বের। এর মধ্যেই আন্দোলনরত চিকিৎসকদের মধ্যে কয়েকজন রাজ্য বিজেপি অফিসেও যাতায়াত করছেন। যাকে কেন্দ্র করে এবার স্বাস্থ্যক্ষেত্রেই বড় চ্যালেঞ্জের মুখে পড়তে চলেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এমনই ধারণা বিভিন্ন মহলের।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

seven − four =