ভিডিওবার্তায় পালঘর-কাণ্ডে সনিয়া গান্ধীকে অভিযুক্ত করায় অর্ণবের বিরুদ্ধে এফআইআর সোমেন মিত্রের

চিন্ময় ভট্টাচার্য, আমাদের ভারত, ২৩ এপ্রিল: এক বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলের সঞ্চালক অর্ণব গোস্বামীর বিরুদ্ধে এন্টালি থানায় এফআইআর দায়ের করলেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি সোমেন মিত্র। পাশাপাশি, রাজ্যের প্রতিটি জেলার কংগ্রেস সভাপতিদের ওই টিভি চ্যানেলের সঞ্চালকের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করতে তিনি নির্দেশ দিয়েছেন। কংগ্রেস সভানেত্রী একজন সাংসদ অর্থাৎ জনপ্রতিনিধি। তিনি একজন প্রবীণ নাগরিক। এমন এক ব্যক্তিত্বের বিরুদ্ধে ওই টিভি চ্যানেলের সঞ্চালক অপমান, মানহানিসূচক মন্তব্য করেছেন, মর্যাদাহানি করার চেষ্টা করেছেন। সঙ্গে, সাম্প্রদায়িক বিভাজনে উসকানি দিয়েছেন। এই অভিযোগে ওই সঞ্চালকের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি।

মহারাষ্ট্রে দাদরা নগর হাভেলির কাছে পালঘর থেকে ১১০ কিমি দূরে ১৬ এপ্রিল গণপ্রহারে দুই হিন্দু সন্ন্যাসী-সহ তিনজন প্রাণ হারান। এই হত্যার ঘটনায় কংগ্রেস সভানেত্রী সনিয়া গান্ধীর কাছে জবাবদিহি চেয়েছিলেন টিভি চ্যানেলের ওই সঞ্চালক অর্ণব রঞ্জন গোস্বামী। তাঁর বক্তব্য, মহারাষ্ট্র সরকারে কংগ্রেস অন্যতম শরিক দল। তাই কংগ্রেস সভানেত্রী সনিয়া গান্ধি পালঘরের ঘটনার দায় এড়িয়ে যেতে পারেন না। অর্ণব গোস্বামী অভিযোগ করেছিলেন, মহম্মদ আখলাক ও মুসলিম সম্প্রদায়ের লোকজন যখন গণপ্রহারে প্রাণ হারান, তখন কংগ্রেস সভানেত্রী সেই সব ঘটনার তীব্র নিন্দা করেন। কিন্তু, ওই দুই নিহত সন্ন্যাসী হিন্দু বলেই সনিয়া গান্ধী রা কাড়ছেন না। এর পরও কি হিন্দুরা চুপ করে থাকবে? অনুষ্ঠানে সেই প্রশ্নও তুলেছিলেন অর্ণব গোস্বামী।

পাশাপাশি, টিভি প্রোগ্রামে কংগ্রেস সভানেত্রীর ইতালীয় জন্মসূত্র নিয়েও কটাক্ষ করেছেন টিভি চ্যানেলের ওই সঞ্চালক। তিনি বলেছেন, ‘এটা ইতালি নয় সনিয়াজি, এদেশের লোকজন জানে যে সন্ন্যাসীরা গেরুয়া বসনধারী।’ তাই শিশুচোর মনে করে স্থানীয়রা ওই দুই সন্ন্যাসীকে হত্যা করেছেন, মহারাষ্ট্র সরকারের এই দাবি ঠিক নয় বলেই অর্ণব গোস্বামী তাঁর টিভির অনুষ্ঠানে বোঝানোর চেষ্টা করছিলেন। গতকাল ওই টিভি প্রোগ্রাম শেষে বাড়ি ফিরে আরও একটি ভিডিও পোস্ট করেন অর্ণব গোস্বামী। সেখানে তিনি অভিযোগ করেন, তাঁর টিভির অনুষ্ঠান দেখে ক্ষুব্ধ যুব কংগ্রেসের সদস্যরা দলের ঊর্ধ্বতন নেতৃত্বের নির্দেশে তাঁর ওপর হামলা চালিয়েছেন। ওই ভিডিওবার্তায় অর্ণব গোস্বামী চ্যালেঞ্জ ছুড়ে জানিয়ে দেন, এসব করে কংগ্রেস সভানেত্রী সনিয়া গান্ধি তাঁকে ভয় দেখাতে পারবেন না। তিনি কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়াঙ্কা বঢড়ার তৈরি ‘ফেক নিউজ’ যেভাবে ‘ফেক’ প্রমাণ করেছেন, সেভাবেই নিজের কাজ চালিয়ে যাবেন। সনিয়া গান্ধি ও কংগ্রেস তাঁর বিরুদ্ধে হাজার হাজার মামলা করেও কিছু করতে পারবে না। এর পরই অর্ণব গোস্বামীর বিরুদ্ধে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি মামলা দায়ের করার কথা জানান।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here