সুরক্ষা বিধি মানছে না মানুষ, করোনা আটকাতে নামানো হলো কমান্ডো বাহিনী

আমাদের ভারত, ৯ জুলাই: সুরক্ষা বিধি না মানার কারণে দ্রুতগণিতে ছড়াচ্ছে করোনা। তিরুবন্তপুরমের উপকূলবর্তী একটি গ্রাম পুনথুরায় হু হু করে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়েছে। এই পরিস্থিতিতে ওই গ্রামে করোনা মোকাবিলায় চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিল সরকার। সেখানে নামানো হলো কমান্ডো বাহিনী।

এছাড়াও জোরকদমে করোনা পরীক্ষা শুরু করা হয়েছে সেখানে ‌। পাশাপাশি ২৫ জনের কমান্ডোর একটি দল মোতায়েন করা হয়েছে গোটা গ্রামে। এখন কমান্ডোরা নজরদারি করছে ওই গ্রামে। প্রয়োজন ছাড়া কেউ বাড়ি থেকে বেরোলে কিংবা করোনা বিধি না মানলে তাকে ঘাড় ধরে কমান্ডো বাহিনী নিয়ে যাচ্ছে কোয়ারেনটাইনে।

এই কমান্ডো বাহিনী মোতায়েনের আগে গ্রামবাসীকে সতর্ক করার জন্য মাইকিং করা হয়েছে। বলা হয়েছে প্রয়োজন ছাড়া বাড়ি থেকে বেরিয়ে ঘোরাঘুরি করলে তুলে নিয়ে যাবে কমান্ডো। ওই রাজ্যের সরকারের তরফে জানানো হয়েছে গত পাঁচ দিনে ৬০০ জনের পরীক্ষা হয়েছে এই গ্রামে। যার মধ্যে ১১৯ জনের পজিটিভ রিপোর্ট এসেছে। অনুমান ওই গ্রামে রয়েছেন কয়েকজন করোনা সুপার স্প্রেডার। একজন ব্যক্তির থেকে ৬ জন বা তার বেশি লোক করোনা আক্রান্ত হলেই তাকে সুপার স্প্রেডার বলা হয়ে থাকে।

এই গ্রামের অধিকাংশ মানুষই মৎস্যজীবী। একজন মাছ ব্যবসায়ী থেকেই এই গ্রামে করোনা ছড়িয়ে পড়েছে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। খতিয়ে দেখতে গিয়ে জানা গেছে, ঘনো ঘনো মাছ নিয়ে তামিলনাড়ু থেকে স্থানীয় বাজারে এনে বিক্রির মাঝে এক করোনা আক্রান্তের সংস্পর্শে এসেই বাকিদের শরীরে ছড়িয়ে পড়েছে এই ভাইরাস। তাই গ্রাম থেকে আপাতত তামিলনাড়ুতে মাছ ধরতে যাওয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে সরকার।

বাইরে থেকে নৌকা নিয়েও কেরলে ফিরে আসা যাবে না বলেও জানিয়ে দিয়েছে সরকার। সিল করে দেওয়া হয়েছে পুরো গ্রাম। তবে গ্রামবাসী যাতে প্রতিদিন খাবার পায় তারজন্য বাড়ি বাড়ি গিয়ে পাঁচ কেজি চাল দিয়ে আসা হয়েছে সরকারের তরফে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here