ভারতে তৈরি করোনার ভ্যাকসিন ১৫ আগস্ট আসতে পারে বাজারে

আমাদের ভারত,৩ জুলাই: প্রতিদিন লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। জুলাই আগস্ট মাসে করোনা সংক্রমণের নিরিখে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। কিন্তু এই পরিস্থিতিতেই একটা খুশির খবর পাওয়া গেছে।১৫ আগস্ট অর্থাৎ স্বাধীনতা দিবসের দিনেই লঞ্চ হতে পারে ভারতের তৈরি প্রথম করোনার টিকা কোভ্যাকসিন।

ভারত বায়োটেক ইন্টারন্যাশনালের সঙ্গে যৌথভাবে এই ভ্যাকসিন নিয়ে আসছে ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অফ মেডিক্যাল রিসার্চ বা আইসিএমআর। সম্পূর্ণ দেশীয় প্রযুক্তিতে তৈরি এই ভ্যাকসিনের ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের জন্য ১২ ইনস্টিটিউটকে মনোনীত করা হয়েছে বলে সরকারের শীর্ষ মেডিকেল রিসার্চ বডি জানিয়েছে। এই ইনস্টিটিউট গুলিকে আইসিএমআর ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের জন্য প্রস্তুত হতে বলেছে। বিষয়টিকে প্রায়োরিটি প্রজেক্ট হিসেবে দেখছে কেন্দ্রীয় সরকার।

ইনস্টিটিউটগুলিকে চিঠি দিয়ে আইসিএমআর বলেছে , পুনের ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ বায়োলজিতে সার্স কফ-২ স্ট্রেন নিয়ে কাজ করে এই ভ্যাকসিন প্রস্তুত করা হয়েছে। আইসিএমআর এবং বিবিআই একসাথে এই ভ্যাকসিনের ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল এবং ক্লিনিক্যাল ডেভলপমেন্ট এর ওপর কাজ করছে। সাধারণ মানুষের জন্য আগামী ১৫ আগস্ট এই টিকা লঞ্চ করতে চায় আইসিএমআর। স্বাধীনতা দিবসেই করোনাভাইরাস এর মত মারোনা অসুখ থেকে দেশবাসীকে মুক্তি দিতে চাই কেন্দ্র।

চলতি সপ্তাহেই ক্লিনিকাল ট্রায়াল শুরু করে দেবার নির্দেশ দিয়েছে আইসিএমআর। ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের উপর নির্ভর করবে এই ভ্যাকসিনের সাফল্য।

ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের জন্য নির্বাচিত ইনস্টিটিউট গুলিকে নির্দিষ্ট টাইমলাইনের মধ্যে সর্বাধিক গুরুত্ব দিয়ে এআ কাজটি করতে বলা হয়েছে। দেশের যেসব জায়গার ইনস্টিটিউট গুলিকে ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের জন্য বেছে নেওয়া হয়েছে সেগুলি অবস্থিত বিশাখাপত্তনম, রোহতক, নিউ দিল্লি, পাটনা,বেলগাঁও, নাগপুর, গোরখপুর, কত্তানকুলাথুর, হায়দ্রাবাদ,আর্য নগর, কানপুর, গোয়া।

সারা বিশ্বের বিজ্ঞানীরা করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন প্রস্তুতের আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। পৃথিবীতে এখনো পর্যন্ত এককোটির বেশি মানুষ করোনায় আক্রান্ত। ভারতে করোনা সংক্রমিতের সংখ্যা ৬ লক্ষ অতিক্রান্ত। তারমধ্যে ভারতের তৈরি টিকা যদি বাজারে চলে আসে তা অবশ্যই স্বস্তি দেশবাসীর জন্য।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here