কাল থেকেই শুরু করোনার ভ্যাকসিনের মানবদেহের পরীক্ষামূলক প্রয়োগ

আমাদের ভারত, ২২ এপ্রিল: বৃহস্পতিবার অর্থাৎ ২৩ এপ্রিল থেকে করোনার সম্ভাব্য ভ্যাকসিনের মানবদেহে ট্রায়াল শুরু করছে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা। ব্রিটিশ সরকারের তরফে মঙ্গলবার এই খবর জানানো হয়েছে। আগের সপ্তাহেই আগে বিদ্যালয়ের গবেষকরা জানিয়েছিলেন তাঁরা দ্রুত ভ্যাকসিন আনতে চলেছেন। সবকিছু ঠিক থাকলে, সেপ্টেম্বর মাসের মধ্যেই তা পাওয়া যাবে।

অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক সারা গিলবার্ট দাবি করেন, কোবিড-১৯ সংক্রমণ ছড়ানোর জন্য দায়ী সার্স সিওভি-২ ভাইরাসের বিরুদ্ধে গবেষণাগারের পরীক্ষায় সফল হয়েছে তাদের তৈরি চাদক্স-১ ভ্যাক্সিন।

গবেষণা দলের আর এক সদস্য অ্যান্ড্রু পোলার্ড বলেন, তাদের তৈরি এই ভ্যাকসিন হল একটি রিকম্বিনেন্ট ভাইরাল ভেক্টর ভ্যাকসিন। একবার তৈরি হলে রেকর্ড সময় বিশাল পরিমাণ বাণিজ্যিক উৎপাদন সম্ভব। তারা আশা সব ঠিকঠাক চললে আগামী সেপ্টেম্বরের মধ্যেই কয়েক লক্ষ ভ্যাকসিন তৈরি হয়ে যাবে।

একটি ভ্যাক্সিন প্রয়োগ থেকে শুরু করে তার বানিজ্যিক উৎপাদন করতে ১২-১৮ মাস সময় লাগে।ব্রিটিশ স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানান, অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা এই সময়টিকে ত্বরান্বিত করেছেন। তারা এ ব্যাপারে মেডিসিন অ্যান্ড হেলথ কেয়ার রেগুলেটরি এজেন্সির অনুমতি নিয়েছেন। ফলে মানুষের শরীরে অক্সফোর্ড প্রজেক্টে ট্রায়াল বৃহস্পতিবারই শুরু হবে।

ভ্যাকসিনের ট্রায়ালে সাহায্য করতে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়কে ২কোটি পাউন্ড দেবে ব্রিটিশ সরকার। আরোও দুই কোটি পাউন্ড দেবের লন্ডনের ইমপেরিয়াল কলেজের গবেষকদের বলেও জানিয়েছেন ব্রিটিশ স্বাস্থ্য মন্ত্রী।

এই ভ্যাকসিন সুস্থ ও প্রাপ্তবয়স্ক ৫০০ জন পুরুষ ও মহিলার ওপর প্রয়োগ করা হবে, যাদের বয়স১৮ থেকে ৫৫ বছর। ১০ই জানুয়ারি থেকে এই করোনা প্রতিরোধী ভ্যাক্সিন তৈরীর কাজ শুরু হয়েছে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here