লকডাউনে কাজ হারিয়ে আত্মহত্যা দম্পতির

জে মাহাতো, আমাদের ভারত, মেদিনীপুর, ৯ অক্টোবর: খড়্গপুর শহরের নিমপুরা এলাকা থেকে শুক্রবার সকালে ভেঙ্কট রাও ও সীতা লক্ষ্মী নামে এক দম্পতির মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। দক্ষিণ ভারতীয় এই দম্পত্তির বয়স আনুমানিক ৩৫ ও ২৫ বছর বলে পুলিশ জানিয়েছে।

জানাগেছে, লকডাউনের কিছুদিন আগে এই তরুণ দম্পত্তি বিয়ে করেছিলেন। মাস দুয়েক আগে এই এলাকায় একটি ভাড়া বাড়ি নিয়ে থাকতেন তাঁরা। এখানেই কাজের সন্ধান করছিলেন। কিন্তু সম্ভবত কাজ জোগাড় করে উঠতে পারেননি। শুক্রবার সকালে নিমপুরা কনকদূর্গা মন্দির এলাকায় রেলের একটি ফাঁকা মাঠে ওই দুজনের দেহ পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয় বাসিন্দারা পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ এসে দেহ উদ্ধার করে।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, ওই যুবক একটি বেসরকারি অফিসে পিওনের কাজ করতেন। তখন থাকতেন খড়গপুরের অন্য এলাকাতে। লকডাউনের শুরুর ঠিক আগেই বিয়ে করেন। আর তারপরেই লকডাউন শুরু হয়ে যাওয়ায় কাজ হারান। এরপর তাঁরা অপেক্ষাকৃত কম ভাড়ায় এই এলাকায় চলে আসেন।”

মনে করা হচ্ছে প্রবল আর্থিক সঙ্কটের মুখে পড়েছিলেন ওই দম্পত্তি। সামান্য যা টাকা পয়সা জমেছিল তাই দিয়ে এই ক’দিন কোনও মতে চালিয়েছিলেন। ভেবেছিলেন পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে আবার কাজ জুটিয়ে নেবেন কিন্তু শেষ পর্যন্ত আর কাজ জোটাতে পারেননি। অভাব আর হতাশায় কীটনাশক খেয়ে আত্মহত্যার সিদ্ধান্ত নেন তাঁরা। পুলিশ অবশ্য এখুনি কিছু জানায়নি। ময়না তদন্তের জন্য দেহ দুটি পাঠানো হয়েছে খড়গপুর মহকুমা হাসপাতালে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here