এবার কারাবাসে পার্থ অর্পিতা! ১৪ দিন জেল হেফাজতের নির্দেশ আদালতের

আমাদের ভারত, ৫ আগস্ট: গত ১২ দিন ধরে পার্থ চট্টোপাধ্যায় ও অর্পিতা মুখোপাধ্যায় ইডির হেফাজতে রয়েছেন। এই ১২ দিনে কখনো একাকী কখনো মুখোমুখি বসিয়ে ইডি আধিকারিকরা জেরা করেছেন দু’জনকে। শুক্রবার পুলিশ হেফাজতের মেয়াদ শেষ হলে তাদের ব্যাঙ্কশাল কোর্টে তোলা হয়। ইডির তরফে হাজির করা হয় এপর্যন্ত পাওয়া তথ্য প্রমাণ। সব শুনে এদিন আদালত তাদের ১৪ দিনের জেল হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছে।

আগামী ১৮ আগস্ট ফের অপাকে ব্যাঙ্কশাল কোর্টে তোলা হবে। আদালতের নির্দেশে এতদিন ইডি হেফাজতে ছিলেন পার্থ অর্পিতা। এই সময় কালে ইডি একাধারে যেমন জিজ্ঞাসাবাদ চালিয়েছে তেমনি নানা জায়গায় গিয়ে তল্লাশি চালিয়ে বিপুল সম্পত্তি উদ্ধার করেছে। ইডি জানিয়েছে, পার্থ চট্টোপাধ্যায় পুরোপুরি মুখ খোলেননি। ফলে ১২ দিন পর শুক্রবার তাদের আদালতে তোলা হয়। আদালতে ইডির আইনজীবী জেল হেফাজতের দাবি জানান। একইসঙ্গে হেফাজতে গিয়ে তাদের জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি চাওয়া হয়।

অন্যদিকে পার্থর আইনজীবী জামিনের আবেদন জানিয়েছিলেন। তার দাবি পার্থ চট্টোপাধ্যায় এখন কোনো পদে নেই। দরকারে বিধায়ক পদ তিনি ছেড়ে দিতে পারেন। তিনি বলার চেষ্টা করেছিলেন প্রভাবশালী তত্ত্ব যা খাড়া করা হচ্ছে তা সঠিক নয়। তিনি বলেন, পার্থর কাছ থেকে কিছু উদ্ধার করা হয়নি। তিনি কোথাও পালিয়ে যাবেন না। উনি বিধায়ক পদ থেকে ইস্তফা দেওয়ার কথা ভাবছেন।

অন্যদিকে পার্থ ঘনিষ্ঠ অর্পিতার আইনজীবী আদালতে জামিনের আবেদন না জানালেও তিনি বলেন, তার মক্কেল নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। তার প্রাণ সংশয়ের আশঙ্কা রয়েছে। অর্পিতার আইনজীবী বলেছেন, তার মক্কেলকে যাই খেতে দেওয়া হোক তা যেন পরীক্ষা করে দেওয়া হয়।

গত মাসের ২৩ তারিখ পার্থ চট্টোপাধ্যায় অর্পিতা মুখোপাধ্যায়কে গ্রেপ্তার করেছিল ইডি। এরপরই অর্পিতার ফ্ল্যাট থেকে কোটি কোটি টাকা উদ্ধার করেছিল। তার সঙ্গে উদ্ধার হয় বিপুল পরিমাণ সোনা, বিদেশি মুদ্রা ও বহু গুরুত্বপূর্ণ নথি, সম্পত্তির দলিল। প্রথমে টালিগঞ্জের ফ্ল্যাট তারপর বেলঘড়িয়ার ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার হয়েছিল এই বিপুল পরিমাণ টাকা। এখনো তল্লাশি চালিয়ে যাচ্ছে ইডি।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here