পাকিস্তানের রাজনীতির কিং মেকার হওয়ার চেষ্টা দাউদের, রাজনীতিতে নামছেন বেয়াই মিয়াঁদাদ

চিন্ময় ভট্টাচার্য, আমাদের ভারত, ১২ মে: এবার পাকিস্তানের রাজনীতিতে ‘কিং মেকার’ হওয়ার চেষ্টা চালাচ্ছে দাউদ ইব্রাহিম কাসকর। ভারতীয় গুপ্তচর সংস্থা রিসার্চ অ্যান্ড অ্যানালাইসিস উইং (র) সূত্রে এমনই জানতে পেরেছে প্রতিরক্ষা মন্ত্রক। সূত্রের খবর, দাউদের হয়ে এই ব্যাপারে সামনে থেকে কাজ করছেন তাঁর বেয়াই জাভেদ মিয়াঁদাদ। দাউদের মেয়ের সঙ্গে মিয়াঁদাদের ছেলের কয়েক বছর আগে বিয়ে হয়েছে। যদিও মিয়াঁদাদের সঙ্গে দাউদের যোগাযোগ আরও আগে, ক্রিকেট বেটিং চক্রের সূত্র ধরে। এমনটাই জানতে পেরেছেন গোয়েন্দারা।

পাকিস্তানে ইমরান খানের মতো মিয়াঁদাদকেও বিশেষ সম্মান জানিয়ে থাকে ক্রিকেট মহল। রাজনীতি থেকে ধর্ম, নানা বিষয়ে ইমরানের চেয়ে মিয়াঁদাদ বেশ কয়েকগুণ গোঁড়া। তাই পাকিস্তানের বিভিন্ন মৌলবাদী সংগঠনের কাছে মিয়াঁদাদের কদরটাও একটু বেশি। পাকিস্তানের জঙ্গি সংগঠনগুলো প্রায় সবকটাই মৌলবাদীদের দ্বারা প্রভাবিত ও নিয়ন্ত্রিত। সেই সব জঙ্গি এবং মৌলবাদী সংগঠনগুলোকে দাউদ নিয়মিত অর্থসাহায্য করে থাকে। সেই সূত্রে পাকিস্তানের গুপ্তচর সংস্থা আইএসআইয়ের ওপরও দাউদের ভালোই প্রভাব রয়েছে। সেই সূত্র ধরে পাকিস্তানের রাজনীতিতে মিয়াঁদাদকে তারকা করে তুলতে চেষ্টা চালাচ্ছে দাউদ।

গোয়েন্দারা জানতে পেরেছেন, করোনা পরিস্থিতি
পাকিস্তানের অর্থনীতিকে কার্যত দেউলিয়া করে ছেড়েছে। এই অবস্থায় ইমরান খানের নেতৃত্বাধীন সরকারের প্রতি মানুষের ক্ষোভ ক্রমশ বাড়ছে। সেই সুযোগকেই কাজে লাগাতে মরিয়া দাউদ মিয়াঁদাদকে রাজনীতিতে নামাতে এই সময়কেই বেছে নিয়েছে। সূত্রের খবর, পাকিস্তান ক্রিকেট দলে তাঁর প্রাক্তন ক্যাপ্টেন ইমরানকে দেখে রীতিমতো উদ্বুদ্ধ মিয়াঁদাদ। তিনিও ইমরানের মতোই পাকিস্তানের রাজনীতির ‘কিং’ হয়ে উঠতে চান। বেয়াইয়ের সেই স্বপ্ন সফল করতেই দাউদ রীতিমতো ঝাঁপিয়ে পড়েছে। রবিবারই করাচিতে নিজের সাদা বাড়ি থেকে এই ডন কনভয় নিয়ে বেরিয়েছিল। এর পর করাচির ডিফেন্স কলোনিতে পাকিস্তান গুপ্তচর বাহিনীর কর্তাদের সঙ্গে তার রীতিমতো বৈঠক হয়েছে।

সেই বৈঠকে ভারতে জঙ্গি হামলা চালানোর জন্য বিভিন্ন সংগঠনকে মদত দেওয়ার পাশাপাশি, পাকিস্তানের রাজনীতিতে মিয়াঁদাদের পদার্পণ নিয়েও আলোচনা হয়েছে। সূত্রের খবর, মিয়াঁদাদ সম্প্রতি দাবি করেছেন, পাকিস্তানের অর্থনৈতিক হাল এতই খারাপ যে আন্তর্জাতিক মুদ্রা ব্যাংক থেকে ঋণ নিয়ে পরিস্থিতি সামাল দিতে গেলেও পাকিস্তানকে পরমাণু বোমা গ্যারান্টি হিসাবে মুদ্রা ব্যাংকের কাছে জমা রাখতে হবে। এই পরিস্থিতি থেকে পাকিস্তানকে বাঁচাতে অর্থ সংগ্রহ করাও শুরু করেছেন মিয়াঁদাদ। সেই অর্থ সংগ্রহের জন্য তিনি একটি ব্যাংক অ্যাকাউন্টও খুলেছেন। যে ব্যাংকে সেই অ্যাকাউন্ট তিনি খুলেছেন, সেখানে দাউদের ভালোই প্রভাব রয়েছে।

সূত্রের খবর, পাকিস্তানের অর্থনীতির বেহাল দশার নাম করে মিয়াঁদাদের এভাবে অর্থ সংগ্রহকে ভালো চোখে দেখছে না পাকিস্তানের গুপ্তচর সংস্থার কয়েকজন কর্তা। তাঁরা গোটা ঘটনায় দাউদের হাত রয়েছে বলে মনে করছে। জাভেদ মিয়াঁদাদের এই অর্থসংগ্রহের ব্যাপারে বৈঠকে আইএসআইয়ের ওই কর্তারা দাউদকে কটাক্ষও করেছে। পাশাপাশি, পাকিস্তানের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপের চেয়ে ভারতে কীভাবে নাশকতা চালানো যায়, সেদিকেই নজর দিতে দাউদকে নির্দেশও দিয়েছে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here