ঘরের চাল ভাঙ্গাকে কেন্দ্র করে দুই ভাইয়ের বিবাদে মৃত্যু এক প্রতিবেশী যুবকের, আহত আরও ৩

সুশান্ত ঘোষ, আমাদের ভারত, উত্তর ২৪ পরগণা, ১৩ মে: ঝড়ে গাছ ভেঙ্গে ঘরের চাল ভেঙ্গে যাওয়াকে কেন্দ্র করে দুই ভাইয়ের বিবাদ। সেই বিবাদ মেটাতে গিয়ে প্রতিবেশী এক যুবককে কুপিয়ে খুন করার অভিযোগ দাদা শ্যামল মণ্ডল, দীগন্ত মণ্ডল ও শেফালি মণ্ডলের বিরুদ্ধে। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর ২৪ পরগনার গাইঘাটা থানার শিমুলপুর মানিকতলা গ্রামে। মৃত ব্যাক্তির নাম সুদীপ বালা। ঘটনায় আহত হয় বেশ কয়েকজন। খবর পেয়ে অভিযুক্ত তিন জনকে গাইঘাটা থানার পুলিশ গ্রেফতার করে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রের খবর, দিন কয়েক আগে সামান্য ঝড়ে দাদার জমির একটি গাছ ভেঙ্গে পড়ে পাশে থাকা ভাইয়ের টিনের চালে। ভাই তার দাদার কাছে ক্ষতিপূরণ দাবি করে। দাদা দিতে অস্বীকার করলে ভাই স্থানীয় ক্লাবের যুবকদের জানায়। সেই মতো ক্লাবের সদস্যরা একটি শালিসিসভা ডাকে। অভিযুক্ত শ্যামল সেই শালিসভায় উপস্থিত না হওয়ায় ক্লাবের যুবকরা শ্যমলকে ডাকতে তার বাড়ি গেলে ক্লাবের যুবকদের লক্ষ্য করে ধারালো দাঁ দিয়ে এলোপাতাড়ি কোপ মারে। সুদীপ বালা পালাতে গিয়ে পড়ে যায়। তাকে একা পেয়ে হাতে, গলায় ও বুকে কোপ মারে। শ্যামলের স্ত্রী ও ছেলে হাতুড়ি দিয়ে মাথায় আঘাত করে বলে প্রতিবেশীদের অভিযোগ। এরপর প্রতিবেশী যুবকরা আহত ও নিহত সুদীপকে উদ্ধার করে ঠাকুরনগর হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যায়। সুদীপের অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে চিকিৎসকরা কলকাতার আরজিকর হাসপাতালে নিয়ে যেতে পরামর্শ দেয়। আরজিকর হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

এই ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসে গাইঘাটা থানার পুলিশ। এই ঘটনায় অভিযুক্ত দীগন্ত মণ্ডল, শ্যামল মণ্ডল ও শেফালি মণ্ডলকে পুলিশ গ্রেফতার করে। ধৃতদের বুধবার বারাসত আদালতে তোলা হয়।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here