মগরাহাট পশ্চিমের বিজেপি প্রার্থীর মৃত্যু, শোকের ছায়া এলাকায়

আমাদের ভারত,মগরাহাট, ২২ সেপ্টেম্বর: বিধানসভা নির্বাচন পরবর্তী হিংসার শিকার হয়েছিলেন দক্ষিন ২৪ পরগনার মগরাহাট পশ্চিম কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী মানস সাহা। নির্বাচনের ফল ঘোষণার পর গননা কেন্দ্র থেকে বাড়ি ফেরার পথে তৃণমূলের দুষ্কৃতীদের হাতে আক্রান্ত হয়েছিলেন তিনি। সেই থেকেই অসুস্থ ছিলেন। অবশেষে বুধবার ঠাকুরপুকুরের একটি বেসরকারি নার্সিংহোমে তাঁর মৃত্যু হয়। তাঁর মৃত্যুতে পরিবারের সদস্যরা ভোট পরবর্তী হিংসার দিকেই অভিযোগের আঙুল তুলেছেন।

গত বিধানসভা নির্বাচনে মগরাহাট পশ্চিম কেন্দ্র থেকে রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী তথা তৃণমূল প্রার্থী গিয়াসউদ্দিন মোল্লার বিরুদ্ধে প্রতিদ্বন্ধিতা করেন তিনি। বিজেপির মথুরাপুর সাংগঠনিক জেলার সহ সভাপতিও ছিলেন মানস সাহা। মে মাসের ২ তারিখে ডায়মন্ড হারবার মহাবিদ্যালয়ের ভোট গননা কেন্দ্রে থেকে ফেরার পথে তৃণমূল কংগ্রেসের আশ্রিত দুষ্কৃতীদের হাতে আক্রান্ত হন মানস সাহা সহ বেশ কয়েকজন বিজেপি কর্মী সমর্থক। সেই দিন থেকেই তিনি অসুস্থ ছিলেন। বুধবার সকালের দিকে আচমকা অসুস্থ বোধ করায় তাঁকে পরিবারের সদস্যরা ঠাকুরপুকুরের একটি বেসরকারি নার্সিংহোমে নিয়ে যান। সেখানেই দুপুরে তাঁর মৃত্যু হয়।

দক্ষিণ ২৪ পরগনার উস্থির থানার এয়ারপুর গ্রামের বাসিন্দা ছিলেন মানস সাহা। তাঁর মৃত্যুতে শোকাহত পরিবার পরিজন। পরিবারের সদস্য ও এলাকার বিজেপি নেতাদের দাবি, তৃণমূলের সন্ত্রাসের কারণেই মৃত্যু হয়েছে মানসবাবুর। যদিও সে কথা মানতে চাননি গিয়াসউদ্দিন মোল্লা। তিনি বলেন, “আমি গভীর ভাবে শোকাহত। যে কোনও মৃত্যুই বেদনাদায়ক। ওনার পরিবারের প্রতি আমার সমবেদনা রইলো। তবে এই বিজেপি নেতার মৃত্যুর ঘটনায় মিথ্যা করে তৃণমূল কর্মীদের নাম জড়ানো হচ্ছে। উনি বাড়িতে থেকেই অসুস্থ হয়েছেন। তাঁর মৃত্যুর জন্য তৃণমূল কর্মীরা দায়ী নন।”

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here