অফিস-কারখানায় কাজের সময় বাড়িয়ে কমপক্ষে ১২ ঘন্টা করা হোক, শ্রম আইন শিথিলের দাবি শিল্প মহলের

আমাদের ভারত, ৯ মে: করোনা মোকাবিলায় লকডাউনের কারণে শুধু শ্রমিকরাই বিপাকে পড়েছে তা নয়, কঠিন পরিস্থিতির সামনে দাঁড়িয়েছে শিল্প সংস্থাগুলিও। দীর্ঘদিন উৎপাদন বন্ধ থাকায়, নগদে ঘাটতি, শ্রমিকের অভাবের কারণে অস্তিত্ব সংকটে পড়েছে অনেক সংস্থারই। এই পরিস্থিতিতে টিকে থাকার জন্য শ্রম আইন শিথিল ও কাজের সময় বাড়িয়ে ১২ ঘন্টা করা সহ সরকারের কাছে দেশের শিল্প মহল একগুচ্ছ দাবি জানিয়েছে।

শিল্পমহলের তরফে কেন্দ্রীয় শ্রম এবং রোজগার মন্ত্রীর সঙ্গে সঙ্গে বৈঠকে দৈনিক কাজের সময় ৮ ঘন্টা থেকে বাড়িয়ে ১২ ঘন্টা করার আবেদন জানিয়েছে। একইসঙ্গে আগামী দুই থেকে তিন বছর শ্রম আইন যাতে বলবৎ না করা হয় সেই দাবিও জানিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকারকাছে তারা।

মূলত লকডাউনের কারণে শিল্প ক্ষেত্রে তৈরি একাধিক সমস্যা এবং এই পরিস্থিতিতে অর্থনীতিকে কিভাবে সচল রাখা যায় তা নিয়ে বৈঠক ডাকা হয়েছিল। এই বৈঠকে শিল্প মহলের বেশিরভাগ প্রতিনিধি কাজের সময় বৃদ্ধির দাবি জানিয়েছেন। তাদের দাবি লক ডাউনের সময়ের ক্ষতি পূরণ করতে শ্রমিকদের দৈনিক ১২ ঘণ্টা কাজ করানো প্রয়োজন।

একইসঙ্গে বেশকিছু শ্রম আইনকেশিথিল করার দাবি জানানো হয়েছে শিল্পমহলের তরফে। ইন্ডাস্ট্রিয়াল ডিসপিউট অ্যাক্টের অধীনে থাকা শর্ত গুলি শিথিল করা এবং লকডাউন পর্বটিকে লে-অফ হিসেবে ঘোষণা করার সুযোগ দেওয়া হোক বলে দাবি করেছেন তারা। এর ফলে শ্রমিকদের প্রতি কোন সংস্থার দায়বদ্ধতা অনেকটাই কমে যাবে।

এই পরিস্থিতি থেকে বেরিয়ে আসতে শিল্পক্ষেত্রে সরকার বিশেষ প্যাকেজ ঘোষণা করুক বলেও দাবি জানিয়েছেন তারা। কম খরচে বিদ্যুৎ সরবরাহের দাবি জানিয়েছেন তারা। কর্মচারীদের দেওয়া বেতনকে সামাজিক দায়িত্ব পূরণের আওতায় ফেলে কর ছাড়ের দাবিও জানিয়েছেন তারা। এই

বৈঠকে বণিকসভা ফি কি, অ্যাসোচাম, সিআইআই সহ ১২ টি সংগঠনের প্রতিনিধিরা ছিলেন। সরকারের তরফে শিল্পমহলের দাবি গুলি খতিয়ে দেখার আশ্বাস দেওয়া হয়েছে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here