ভোটকর্মী রাজকুমার রায়ের মৃত্যুর ঘটনার তদন্ত রিপোর্ট প্রকাশ ও ক্ষতিপূরণের দাবিতে উত্তর দিনাজপুর জেলা শাসকের দপ্তরে বিক্ষোভ ও ডেপুটেশন

স্বরূপ দত্ত, আমাদের ভারত, উত্তর দিনাজপুর, ২৮ সেপ্টেম্বর: ভোট নিতে গিয়ে ভোটকর্মী রাজকুমার রায়ের অস্বাভাবিক মৃত্যুর ঘটনায় ক্ষতিপূরণ এবং ঘটনার তদন্ত রিপোর্ট প্রকাশের দাবিতে আজ উত্তর দিনাজপুর জেলা শাসকের দপ্তরের সামনে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করল রাজকুমার রায় হত্যার বিচার চাই মঞ্চ। বিচার মঞ্চের পক্ষ থেকে অতিরিক্ত জেলা শাসকের কাছে স্মারকলিপি পেশ করা হয়।

২০১৮ সালে ১৪ মে পঞ্চায়েত ভোটে ইটাহার থানার সোনাপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ভোটকর্মী হিসেবে গিয়েছিলেন রহৎপুর হাইমাদ্রাসার শিক্ষক রাজকুমার রায়। ভোট নিতে গিয়ে নিখোঁজ হয়ে গিয়েছিলেন রাজকুমারবাবু।১৫ মে রায়গঞ্জ ব্লকের বামুনগাঁ রেল লাইনের ধার থেকে তার ক্ষতবিক্ষত দেহ উদ্ধার হয়েছিল। শিক্ষক তথা ভোটকর্মীদের নিরাপত্তার দাবিতে উত্তাল হয়ে গিয়েছিল সারা রাজ্য।

রায়গঞ্জ ঘড়িরমোড়ে ভোটকর্মীদের আন্দোলনে গিয়ে নিগৃহীত হতে হয়েছিল তৎকালীন রায়গঞ্জের মহকুমা শাসককে। রাজ্যজুড়ে আন্দোলনের ঢেউ ওঠায় রাজ্য সরকার ১৬ জুলাই প্রয়াত রাজকুমারের স্ত্রী অর্পিতা বর্মন রায়কে উত্তর দিনাজপুর জেলা শাসকের দপ্তরে চাকরি দেন। ভোট নিতে গিয়ে কোনও ভোট কর্মীর মৃত্যু হলে নির্বাচন দপ্তর ২০ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ দেবে বলে ঘোষণা করলেও রাজকুমারবাবুর মৃত্যুর দুই বছর অতিক্রান্ত হলেও আজ পর্যন্ত সেই ক্ষতিপূরণ
পাননি তার পরিবার। অবিলম্বে সেই ক্ষতিপূরণ প্রয়াত ভোটকর্মী রাজকুমার রায়ের পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া এবং মৃত্যুর প্রকৃত ঘটনা প্রকাশ করার দাবিতে রাজকুমার রায় হত্যার বিচার চাই মঞ্চের পক্ষ থেকে আজ অতিরিক্ত জেলা শাসকের কাছে স্মারকলিপি দেওয়া হয়।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here