বকেয়া মজুরি সহ বিভিন্ন দাবিতে গঙ্গাজলঘাঁটিতে আদিবাসী বিকাশ মঞ্চের ডেপুটেশন

সোমনাথ বরাট, আমাদের ভারত, বাঁকুড়া, ২৩ সেপ্টেম্বর: বকেয়া একশো দিনের কাজের মজুরি প্রদান সহ কয়েকদফা দাবিতে গঙ্গাজলঘাঁটির বিডিওর কাছে স্মারকলিপি দিল বাঁকুড়া জেলা আদিবাসী অধিকার ও বিকাশ মঞ্চ। ল্যাম্প অফিসের সামনে থেকে শতাধিক আদিবাসী মানুষ জন মিছিল করে বিডিও অফিসে আসেন। তাদের মূল দাবি, “কেন্দ্র-রাজ্য বুঝি না, কাজ করেছি তার বকেয়া মজুরি অবিলম্বে মিটিয়ে দাও” এবং “কাজ চাই কাজ দাও।”

এই বিক্ষোভ কর্মসূচিতে নেতৃত্ব দেন আদিবাসী অধিকার ও বিকাশ মঞ্চের গঙ্গাজলঘাঁটি ব্লক নেতা বাদল বেসরা, পূর্ণচন্দ্র মুর্মু, শান্তনু মুর্মু ও সোমনাথ মুর্মু। উপস্থিত ছিলেন জেলা নেতা ফারহান হোসেন খান, রবিদাস মুর্মু ও সিপিআইএমল (লিবারেশন)’র জেলা সম্পাদক বাবলু ব্যানার্জি।

বক্তব্য রাখতে গিয়ে শ্রী ব্যনার্জি বলেন, দীর্ঘদিন ধরে বনের জমিতে চাষাবাদ করা জমির পাট্টা ও পরচা পাওয়া যাচ্ছে না। তদন্ত সাপেক্ষে অবিলম্বে তা দিতে হবে। আদিবাসী চাষিদের কৃষক বন্ধু প্রকল্পের মতো সরকারি অনুদান সহ সহায়ক মূল্যে ধান বিক্রির সুযোগ দিতে হবে। আদিবাসী পাড়াগুলিতে পাকা রাস্তা ও গভীর নলকূপের মাধ্যমে পানীয় জলের ব্যবস্থা করতে হবে। ধর্মীয় স্থানগুলি পাকা করা সহ আদিবাসী সমাজের পঞ্চভদ্রদের মাসিক ভাতা এবং হিন্দুদের দুর্গা পুজোর মত আদিবাসী ধর্মীয় অনুষ্ঠান গুলিতে সরকারি অনুদান দিতে হবে।

সিপিআইএমল নেতা বাবলু ব্যানার্জি বলেন, বর্তমানে উন্নয়নের নামে জঙ্গলবাসী আদিবাসীদের উচ্ছেদ করা করা হচ্ছে।আজ কদিন ধরে কুড়মি সম্প্রদায়ের মানুষ যে অবরোধ করছেন আমরা তার সাথে আছি।
গঙ্গাজলঘাঁটি ব্লক প্রশাসনের তরফে জানানো হয়েছে, দাবি দাওয়া সম্বলিত স্মারকলিপিটি সহানুভূতির সঙ্গে বিবেচনার জন্য ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে পাঠিয়ে দেওয়া হবে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here