যাদবপুরে বিজেপি ভেবে পড়ুয়াদের লাঠিচার্জ! ক্ষমা চাইলেন ডেপুটি কমিশনার

সৌভিক বন্দ্যোপাধ্যায়, কলকাতা, ৭ জানুয়ারি: সোমবার রাতে যাদবপুরের সুলেখা মোড়ে তিনটে মিছিল প্রায় একই সময় একসঙ্গে চলে আসায় বিভ্রান্ত হয়ে কর্তব্যরত পুলিশ অফিসাররা নির্বিচারে মিছিলের ওপর লাঠিচার্জ করেন। কিন্তু আইন রক্ষক হয়ে এভাবে লাঠিচার্জ করা উচিত হয়নি, তা স্বীকার করে সাংবাদিকদের ৫ ক্যামেরার সামনে দুঃখ প্রকাশ করলেন ডেপুটি কমিশনার এস এস ডি সুদীপ সরকার। পরে যাদবপুরের পড়ুয়াদের কাছেও দুঃখ প্রকাশ করেন তিনি। তবে তার এই দুঃখ প্রকাশে ক্ষুব্ধ পুলিশকর্মীদের একাংশ।

সুদীপবাবু বলেন, ‘বিজেপি কর্মী ভেবে ভুল করে যাদবপুরে পড়ুয়াদের ওপর লাঠি চালিয়েছিল পুলিশ।’ পুলিশকর্মীদের দাবি, ওপর মহল থেকে নির্দেশ না এলে তারা নিজে নিজের সিদ্ধান্ত নিয়ে কখনোই মিছিল সামলানো বা লাঠি চার্জ করার মতো কাজ করতে পারেন না। ডেপুটি কমিশনারের ভুল সিদ্ধান্তের ফলে এখন পড়ুয়ারা আর তাদের মানতে চাইবেন না।

সোমবার সিপিএম, বিজেপি এবং যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রদের একটি অংশ সুলেখা মোড়ের কাছে মিছিল নিয়ে হাজির হয়। বেশ কিছুক্ষণ অপেক্ষার পর পুলিশ মাইকে সবাইকে সরে যেতে বলে। বিজেপি সরে গেলেও যাদবপুরের পড়ুয়ারা রাস্তায় বসে বিক্ষোভ দেখাচ্ছিল। স্বাভাবিকভাবে যাদবপুর-গড়িয়া রুটে রাস্তা বন্ধ হয়ে যায়। তখনই বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে পুলিশ লাঠি চালায়। মিছিলে লাঠিচার্জের প্রথম নিন্দা করেন রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। বিষয়টি নিয়ে তিনি মুখ্যমন্ত্রীর কাছে অভিযোগ করবেন বলেও জানান। তারপরেই বিপদ বুঝে আচমকা ভোল পাল্টে ক্ষমা চেয়ে নেন এই আইপিএস অফিসার। পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার প্রয়াসে চেয়ে নিচু তলার কর্মীদের আত্মবিশ্বাসে ধাক্কা দিল, তা দাবি করছেন পুলিশকর্মীরাই।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here