নিজেদের অর্থে ২০০টি দুঃস্থ ও হতদারিদ্র পরিবারের হাতে খাদ্য সামগ্রী তুলে দিল এক পরিবার

সুশান্ত ঘোষ, আমাদের ভারত, বনগাঁ, ১০ এপ্রিল:
না কোনও দাদাগিরি করে নয়। না রেশন ডিলারদের ধমকে চমকে নয়। নিজেদের অর্থে প্রায় ২০০টি দুঃস্থ ও হতদারিদ্র পরিবারের হাতে খাদ্যসামগ্রী তুলে দিলেন এক সাধারণ পরিবার। শুক্রবার স্বামী ও ছেলের উদ্যোগে উত্তর ২৪ পরগনার বনগাঁর শক্তিগর কালীবাড়ির বাসিন্দা সোমা দে এই খাদ্য সামগ্রী তুলে দেন।

লকডাউন শুরু হতেই অনেক এলাকার নেতাদের বিরুদ্ধে স্থানীয় রেশন ডিলারদের ধমকে চমকে চাল গম নিয়ে এসে বিলি করার অভিযোগ উঠেছে বহু এলাকায়। রেশন নিয়ে চলছে কালোবাজারি, তা নিয়ে ইতিমধ্যেই সরব হয়েছেন রাজ্যে খাদ্য ও সরবরাহ মন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক।

জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক জানিয়েছেন, রেশন নিয়ে কালোবাজারি করলে কাউকে ছাড়া হবে না। সে দলেরই হোক বা বিরোধী দলের। তিনি বলেন, এই দুর্যোগের সময় এই ধরনের কোনও কাজ বরদাস্ত করা হবে না। সে যে দলেরই হোক না কেন। তা মানবে না সরকার। ইতি মধ্যে দলের নেতাদের রেশন নিয়ে দূর্নীতি আটকাতে দলের রাজ্য সম্পাদককে দায়িত্ব দিয়েছেন তিনি। জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের এমন কাজে খুশি জেলা ও রাজ্যের মানুষ।

তাই ওই পরিবারে কর্তা অরিন্দম দে (ভোম) বলেন, দাদাগিড়ি করে নয়, কোনও রেশন ডিলারকে হুমকি দিয়ে নিয়ে এসে গরীব দুঃস্থদের খাদ্য সামগ্রী দিচ্ছি না। আমাদের নিজেদের অর্থে, যারা দারিদ্র্যতার শেষ সীমানায় বসবাস করেন, তাদের মুখে অন্ন তুলে দেওয়ার আমাদের একমাত্র লক্ষ্য।

গৃহবধূ সোমা দে বলেন, লকডাউনের জেরে গৃহবন্দি সাধারণ মানুষ। শক্তিগড় এলাকার যারা দিন আনে দিন খায়, তারা যেন কোনো ভাবে বিপাকে না পড়ে। সেই সব মানুষের কথা ভেবে ২০০টি পরিবারে হাতে চাল, ডাল, আলু, সয়াবিন, সাবান তুলে দিল ওই পরিবার।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here