সুবর্ণ রৈখিক ভাষা ও সংস্কৃতি চর্চা বিষয়ক ফেসবুক গ্রুপের উদ্যোগে ত্রাণসামগ্রী বিতরণ

জে মাহাতো, আমাদের ভারত, মেদিনীপুর, ২৭ জুন: প্রান্তিক মানুষের পাশে দাঁড়াতে এগিয়ে এলেন সুবর্ণ রৈখিক ভাষা ও সংস্কৃতি চর্চা বিষয়ক ফেসবুক গ্রুপ “আমারকার ভাষা, আমারকার গর্ব” এর সদস্য সদস্যারা। শনিবার সকালে এই গ্রুপের উদ্যোগে ঝাড়গ্রাম জেলার গোপীবল্লভপুর-১ ব্লকের ছোট ঝাউরি শিশু শিক্ষা কেন্দ্রে আয়োজিত এক ত্রাণ বিতরণ শিবিরে ছোট ঝাউরি গ্রামে সার্ভের মাধ্যমে ১০১টি প্রান্তিক পরিবারের হাতে, মুসুর ডাল, বিস্কুট, সরিষার তেল, চানচুর, সয়াবিন, বিভিন্ন মশলা গুঁড়া, লবণ সহ অন্যান্য নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য তুলে দেওয়া হয়। এছাড়াও সবাইকে একটা করে মাস্ক ও সাবান দেওয়া হয়। পাশাপাশি করোনা সচেতনতার বার্তাও দেওয়া হয়।

এর আগে এই গ্রুপের উদ্যোগে ঝাড়গ্রাম ব্লকের পাটাশিমূলে জনজাতি অধ্যূষিত ভেলাইজুড়ি গ্রামের ৫০টি পরিবার, সাঁকরাইল ব্লকের মানগোবিন্দপুর এলাকার ৩৫টি প্রান্তিক পরিবারের হাতে ত্রাণ তুলে দেওয়া হয়েছিল। পাশাপাশি গত ৫ জুন সুবর্ণ রৈখিক অববাহিকার বিভিন্ন স্থানে এই গ্রুপের আহ্বানে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়েছে এবং গত ২০ জুন শহিদ সেনা জওয়ানদের স্মৃতিতে গোপীবল্লভপুর-২ নং ব্লকের কুঠিঘাটে ৬০টি চারাগাছ রোপণ করা হয়। এদিনের কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন গ্রুপের এডমিন বিশ্বজিৎ পাল, সুমিত দাস, শিব পাণিগ্রাহী, আনন্দ বিশুই, তপতী রাণা, বিশ্বজিৎ মহাপাত্র, পায়েল সাউ, অঙ্গনা বাগ, বৈশাখী দে, মণিময় সাউ, নরসিংহ পৈড়া, পবন খামরী, মুরলীধর বাগ প্রমুখ।

মেদিনীপুর থেকে গ্রুপের অন্যতম মডারেটর শিক্ষক সুদীপ কুমার খাঁড়া জানান ,”ভাষা সমাজের বাইরে নয়, ভাষা সমাজের গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ। আমরা ভাষা ও সংস্কৃতি চর্চার গ্রুপে যেমন আমাদের ভাষা ও সংস্কৃতি চর্চা করবো, তেমনি পাশাপাশি আমরা সামাজসেবা ও পরিবেশ সচেতনতা মূলক কিছু কাজও করতে চাই। ঝাড়গ্রামের ভেলাইজুড়ি, সাঁকরাইলের মানগোবিন্দপুর ও গোপীবল্লভপুরের ছোট ঝাঁউরির কর্মসূচি তারই অঙ্গ”।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here