জেলাশাসক করোনা মুক্ত, পশ্চিম মেদিনীপুরে বাড়ছে গোষ্ঠী সংক্রমণ

জে মাহাতো, মেদিনীপুর, ২৩ জুলাই: পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার করোনা যুদ্ধের প্রধান মুখ জেলাশাসক রশমি কমলের করোনা পরীক্ষায় ফলাফল নেগেটিভ এসেছেl সোমবার জেলার সরকারি আধিকারিকদের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছিল আয়ুষ হাসপাতালেl মেদিনীপুর মেডিকেল কলেজের ভাইরোলজি ল্যাবরেটরি মঙ্গলবার রাতে জেলাশাসককে করোনা জীবাণু মুক্ত বলে জানিয়ে দিয়েছেl

বিভিন্ন রাজ্য থেকে আসা পরিযায়ী শ্রমিকদের ওড়িশা সীমান্তের প্রবেশপথ সোনাকানিয়ায় রাখা কোয়ারান্টাইন সেন্টারে থেকে জেলার অসংখ্য কোয়ারান্টাইন সেন্টারে এবং হাসপাতালে তিনি ছুটে বেড়িয়েছেনl এই সময় দুজন বিডিও সহ কয়েকজন প্রশাসনিক আধিকারিক ও স্বাস্থ্য কর্মীর করোনা পরীক্ষায় রিপোর্ট পজিটিভ এসেছেl ফলে প্রশাসনিক মহলে জেলাশাসককে নিয়ে দুশ্চিন্তা ছিলl জেলাশাসকের নেগেটিভ রিপোর্ট স্বস্তি দিলেও তাঁর বাংলোর এক নিরাপত্তাকর্মী  করোনা আক্রান্ত হয়েছেন বলে  জানা গেছেl বাংলোর পাঁচজন নিরাপত্তারক্ষীর সোমবার নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছিলl মঙ্গলবার রাতে পঁয়ত্রিশ বছর বয়সী এক নিরাপত্তারক্ষীর করোনা পজিটিভ রিপোর্ট এসেছেl

সোমবার থেকেই জেলার বেশ কিছু এলাকা থেকে জেলা স্বাস্থ্য ভবনে গোষ্ঠী সংক্রমণের খবর আসতে শুরু করেছেl মঙ্গলবার দাসপুর ব্লকের তাতারপুর গ্রামে একই পরিবারের চারজন এবং খড়গপুর শহরের গোলবাজারে এক ব্যবসায়ী পরিবারের চারজনের একই সঙ্গে আক্রান্ত হওয়ার খবর এসেছেl এছাড়াও দাসপুর ও ঘাটালের ইড়পাল রাধাকান্তপুর বেলেঘাটা পাঁচবেড়িয়া ও জোতভগবান গ্রাম থেকে এক একটি পরিবারের একাধিক সদস্য করোনা আক্রান্ত হয়েছেনl মায়ের সঙ্গে শিশুপুত্রের আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে রাধাকান্তপুর গ্রামেl

ডেবরা থানার বাকলসা সেবকরাম গ্রামে গত সোমবার যে পোস্টমাস্টারের করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে তাঁর পরিবারে তাঁর মা এবং দাদার করোনা পজিটিভ ধরা পড়েছেl সরকারিভাবে এত  প্রচার  করার পরেও জেলা স্বাস্থ্য ভবনের প্রকাশিত রিপোর্টে  হাত ধোয়া, মাস্ক পরা, বাইরে থেকে এসে জীবাণুমুক্ত হয়ে বাড়িতে প্রবেশ করা সহ বিভিন্ন সতর্কতামূলক পদক্ষেপ মানার ক্ষেত্রে মানুষের অনীহার দিকটি সামনে আনা হয়েছেl

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here