চিকিৎসক করোনা পজিটিভ, সাময়িকভাবে বন্ধ হয়ে গেল শান্তিপুর স্টেট জেনারেল হাসপাতাল

স্নেহাশীষ মুখার্জি, আমাদের ভারত, নদীয়া, ১৬ জুলাই:
চিকিৎসক করোনা পজেটিভ, তাই সাময়িকভাবে বন্ধ হয়ে গেলো নদিয়ার শান্তিপুর স্টেট জেনারেল হাসপাতাল।

সূত্রের খবর, শান্তিপুর হাসপাতালের এক চিকিৎসকের বুধবার রাতে করোনা পজেটিভ হওয়ার খবর সামনে আসে। এর পরই তড়িঘড়ি হাসপাতালের শুধু মাত্র ইমারজেন্সি বিভাগ বাদ দিয়ে সাময়িক ভাবে সমস্ত বিভাগ বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিলো হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। সম্পুর্ন হাসপাতাল স্যানিটাইজ করার পরই আবার হাসপাতাল পুরোপুরি চালু হবে বলে হাসপাতাল সূত্রে জানানো হয়েছে।

শান্তিপুর স্টেট জেনারেল হাসপাতালের সুপার জয়ন্ত বিশ্বাস বলেন, আমরা ইমার্জেন্সি পরিষেবা চালু রাখছি এই মুহূর্তে। কিছু মানুষ আছে যারা সামান্য পা মচকালে বা অন্য কোনও কারণে হাসপাতালে চলে আসে। যেহেতু একজন ডাক্তারবাবুর কোভিড পজিটিভ হয়েছে সাত দিন ধরে এখানে তিনি রোগীদের ট্রিটমেন্ট করেছেন সেই জায়গাগুলো এখনো স্যানিটাইজড করা হয়নি। সে কারণে আমরা চাইছি না ওই জায়গাতে আরো পাঁচজনের করোণা পজিটিভ হোক। তার সাথে যে ডাক্তারবাবু ছিলেন তিনি ও এই মুহূর্তে অসুস্থ তাঁর ও শ্বাসকষ্ট হচ্ছে। একেএকে যদি ডাক্তাররা অসুস্থ হয় এবং ডাক্তারের সংস্পর্শে এসে যদি রোগীরা অসুস্থ হয় তখন আমরা শান্তিপুরে করোনা আটকাতে পারব না সারা শান্তিপুর জুড়ে সবাই করোনা পজিটিভ হয়ে যাবে।

সে কারণে আমরা এই মুহূর্তে বলব যে সত্যিই যার ইমার্জেন্সি আছে সে আসুক কিন্তু অযথা কেউ হাসপাতালে ভিড় করবেন না। কারুর আঙ্গুলের কোনা কেটে গেছে আর বিনা মাস্কে ৬ জনকে নিয়ে চলে আসবেন এগুলো বন্ধ করুন। এতে শুধু ডাক্তারদের ক্ষতি হচ্ছে না তাঁদের নিজেদের ও ক্ষতি হচ্ছে। এখানে বেশিরভাগ মানুষ সচেতন নয়। সামাজিক দূরত্ব না মেনে বিনা মাস্কেই তাঁরা হাসপাতাল সহ বিভিন্ন জায়গায় ঘোরাফেরা করছেন।

ছবি: প্রসূতি বিভাগে ভর্তি থাকা লক্ষ্মী দেবনাথের স্বামী রাজু দেবনাথ।

প্রসূতি বিভাগে ভর্তি লক্ষী দেবনাথের স্বামী রাজু দেবনাথ জানান, এখানে আমার স্ত্রী ভর্তি ছিল। আগামী ১৭ তারিখে ডেলিভারি হওয়ার ডেট আছে। আজকে এখানে একজন ডাক্তারের করোনা হওয়ায় আমাদের ছেড়ে দেওয়া হচ্ছে। রোগীর পরিবারের অভিযোগ, ডাক্তাররাই বলছেন আপনারা চলে যান আমরা কাউকে এখন রাখবো না। ঘরগুলো সব স্যানিটাইজার হবে বলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ আমাদের চলে যেতে বলেন। তবে পাশাপাশি তাঁরা এও বলেন যে যদি কোনও বাড়াবাড়ি হয় তাহলে অবশ্যই নিয়ে আসবেন। ২৪ ঘন্টা আমাদের ইমারজেন্সি খোলা আছে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here