মেট্রো ডায়েরির শেয়ার দুর্নীতির অভিযোগে নবান্নের ৪ আমলাকে নোটিশ ইডির

রাজেন রায়, কলকাতা, ১৪ জুন: সারদা নারদ রোজভ্যালি কাণ্ডে তদন্তের পর বহুদিন চুপ ছিল এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট এবং সিবিআই। কিন্তু কংগ্রেস নেতা অধীর চৌধুরীর করা একটি মামলার প্রেক্ষিতে করোনা আবহেও আচমকাই যেন ঘুমন্ত আগ্নেয়গিরির মতো জেগে উঠল কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা ইডি। সূত্রের খবর, রাজ্য সরকারের অধীনে থাকা মেট্রো ডায়েরির শেয়ার ৫০০ কোটি টাকার বদলে মাত্র ৮৫ কোটি টাকায় বেচে দেওয়ায় নবান্নের চার শীর্ষ আমলাকে ২২ জুনের মধ্যে ডেকে পাঠিয়েছে এনফর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট। বিষয়টি প্রকাশ্যে আসতেই শোরগোল পড়ে গেছে রাজনৈতিক মহলে।

সূত্রের খবর, শেয়ার দুর্নীতির অভিযোগে জিজ্ঞাসাবাদ করতে এবার রাজ্যের অর্থসচিব হরেকৃষ্ণ দ্বিবেদী ও প্রাণীসম্পদ বিকাশ দফতরের তৎকালীন সচিব ভগবতীপ্রসাদ গোপালিকা, রাজেশ সিংহ ও রাজীব কুমারকে ২২ জুনের মধ্যে ডেকে পাঠিয়েছে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট। উল্লেখ্য, আইপিএস থেকে আইএস হয়েও ফের ইডির সমন পেতে হল রাজীব কুমার কে।

সচিবদের কাছে সমন পৌঁছতেই তৃণমূলের দাবি, ২০২১ বিধানসভা ভোটের কথা মাথায় রেখে তৃণমূলকে বিপাকে ফেলতে পরিকল্পনা করে ইডিকে হাতিয়ার করে ফের ষড়যন্ত্র শুরু করেছে বিরোধীরা। তবে বলা হয়েছে, কোনও কারণে তাঁরা সশরীরে হাজির হতে না পারলে ভিডিও কনফারেন্সিংয়ে বা লিখিত ভাবে বক্তব্য জানাতে পারেন। নবান্নের চার আমলা হাজিরা দেবেন কি না, তা অবশ্য জানা যায়নি।

জানা গিয়েছে, মেট্রো ডেয়ারিতে রাজ্য সরকারের ৪৩ শতাংশ শেয়ার ছিল। সেই শেয়ার মাত্র ৮৫ কোটি টাকায় কেভেন্টার্সকে বিক্রি করে দেয় রাজ্য। এর পর সংস্থার ১৫ শতাংশ শেয়ার ১৭০ কোটি টাকায় সিঙ্গাপুরের একটি সংস্থাকে বিক্রি করে কেভেন্টার্স। বিরোধীদের অভিযোগ, জেনে বুঝে জলের দরে মেট্রো ডেয়ারিকে কেভেন্টার্সের হাতে তুলে দিয়েছে রাজ্য সরকার।

সরকারের দাবি, সমস্ত নিয়ম মেনে ২ বার টেন্ডার ডেকে শেয়ার বিক্রি করা হয়েছে। এতে কোথাও কোনও গাফিলতি নেই। এবার কেভেন্টার্স কাকে কত দরে শেয়ার বিক্রি করবে তা দেখার দায়িত্ব সরকারের নয়। এবার এই বিষয়ে তদন্ত করতে নামল এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট। সেই কারণেই জিজ্ঞাসাবাদ করতে ওই আমলাকে ডেকে পাঠানো হয়েছে বলে সূত্রের খবর।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here