ঝালদায় ভাইকে খুন করে আত্মঘাতী দাদা, গ্রামবাসীরা দায়ী করছেন অবাধ মদ বেচা কেনাকে

সাথী দাস, আমাদের ভারত, পুরুলিয়া, ২ জুলাই: ভাইকে খুনে অভিযুক্ত দাদার দেহ পাওয়া গেল রেল লাইনে। ঘটনাটি ঘটেছে পুরুলিয়ার ঝালদা থানার তরাং গ্রামে। ঘটনার সূত্রপাত, ওই গ্রামের বাসিন্দা দুই ভাই রবিন পরামানিক ও কালিদাস পরামানিকের মধ্যে মঙ্গলবার রাতে বচসা হয়। সেই সময় দাদা কালিদাস উত্তেজিত হয়ে কুড়ুল দিয়ে ভাই রবিনের মাথায় আঘাত করে। আঘাত পেয়ে রক্তাক্ত অবস্থায় মাটিতে লুটিয়ে পড়েন রবিন। ওই অবস্থায়বতাকে উদ্ধার করে স্বাস্থ্য কেন্দ্র নিয়ে যাওয়ার পথে মারা যান তিনি। 

অভিযুক্ত কালিদাস নিখোঁজ হয়ে যায়। পরদিন বুধবার সন্ধ্যে নাগাদ রেললাইনের পাশে কালিদাসের দেহ উদ্ধার হয়। স্থানীদের অনুমান ভাইকে খুন করার জন্যেই দাদা আত্মঘাতী হন। দেহটি ময়না তদন্তের জন্য পুরুলিয়া সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এই দুই ব্যক্তির অস্বাভাবিক মৃত্যুর ঘটনার জন্য স্থানীয়রা দায়ী করছেন মদ বেচা-কেনাকে। গ্রামের পঞ্চায়েত সদস্য ভোটু সিং বাবু জানান, ‘প্রতি দিন এদের ঝামেলা হতো এই মদ খাওয়াকে কেন্দ্র করে। শেষ পর্যন্ত আজ দুই  ভায়ের প্রাণ গেল। তাই, আমাদের দাবি, গ্রামে অবৈধ মদ ব্যবসা বন্ধ করতে হবে।’ আবগারি দফতরকে কড়া হাতে ব্যবস্থা নিতে হবে বলে দাবি করেন গ্রামবাসী। নাহলে আন্দোলনের হুঁশিয়ারি দেন তাঁরা।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here