বাংলাদেশে পুজোমন্ডপে হামলার দ্রুত বিচার না হলে দূতাবাসে বিক্ষোভের হুঁশিয়ারি

আমাদের ভারত, ১৫ অক্টোবর: বাংলাদেশে পুজো মন্ডপে এবং হিন্দুদের ওপর হামলার দ্রুত বিচার না হলে কলকাতায় বাংলাদেশ দূতাবাসে বিক্ষোভের হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছে।

বাংলাদেশ পররাষ্ট্র মন্ত্রককে উদ্দেশ করে একটি মেলে চিকিৎসক সুমিত সুর বৃহস্পতিবার লিখেছেন, “এই বছরের দুর্গাপূজা উদযাপন করার সময় বাংলাদেশী হিন্দুদের ওপর হওয়া ধর্মীয় অত্যাচারের বিষয় নিয়ে এই মেল। আপনি জানেন যে দুর্গাপূজা হিন্দুদের কাছে প্রধান গুরুত্বের একটি উৎসব, তাই এটি ভারতের পাশাপাশি বাংলাদেশের হিন্দুদের মধ্যেও অত্যন্ত জাঁকজমকপূর্ণভাবে পালিত হয়। কিন্তু এই বছর বেশ কিছু সামাজিক মাধ্যম মঞ্চে কিছু যাচাইকৃত ভিসুয়াল এবং প্রমাণ উঠে এসেছে। এগুলোয় স্পষ্টভাবে দেখা যাচ্ছে যে, বাংলাদেশের কুমিল্লার দুর্গা প্যান্ডেল এবং প্রতিমা ভাঙ্গচুর করা হচ্ছে। সেখানে বাংলাদেশি মুসলমানদের একদল জনতা রয়েছে।

গতকাল ছিল মহা অষ্টমী এবং দেবী দুর্গার মূর্তি জলে নিমজ্জিত করা হয়েছে। যা মা দুর্গার প্রতি চরম অসম্মান প্রদর্শন করে। এই বিষয়ে আমি ভারতের বাংলাদেশ দূতাবাসকে অনুরোধ করব যত তাড়াতাড়ি সম্ভব বিষয়টি খতিয়ে দেখে বাংলাদেশের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে সে অনুযায়ী কাজ করার জন্য এবং অপরাধীদের শাস্তি দেওয়ার জন্য অবহিত করতে।

আমি মাননীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রী এবং ভারতের পররাষ্ট্র সচিবকে অনুরোধ করব বাংলাদেশ হাইকমিশন/পিএমও বাংলাদেশের সাথে যোগাযোগ করুন। যত তাড়াতাড়ি সম্ভব পুরো পরিস্থিতির হিসাব নিন। উপরে উল্লিখিত হিন্দুদের উপর ভয়াবহ আক্রমণের কিছু ফটোগ্রাফিক প্রমাণ সংযুক্ত করা হয়েছে।

এটি সম্ভবত কলকাতায় বাংলাদেশের ডেপুটি হাই কমিশনারের জন্য প্রাথমিক নোটিশ হিসেবে বিবেচিত হতে পারে। এতে কাজ না হলে পশ্চিমবঙ্গে বসবাসকারী হিন্দু বাঙালিরা কলকাতায় বাংলাদেশের ডেপুটি হাই কমিশনারের কার্যালয়ের বাইরে গুরুতর প্রতিবাদ করতে পারে।

আমি আপনাকে নিচের ইউটিউব লিঙ্কটি দেখার আবেদন করছি। এতে স্পষ্টভাবে পুরো বিষয়টি জানা যাচ্ছে। শুভেচ্ছা সহ ড: সুমিত সুর।“

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here