গড়ফায় প্রতিবন্ধী যুবককে বঁটি দিয়ে কুপিয়ে খুনের অভিযোগ পরিবারের বিরুদ্ধেই, সামলাতে গিয়ে আক্রান্ত পুলিশ!

রাজেন রায়, কলকাতা, ২৮ মে: প্রতিবন্ধী ছেলেটি যেভাবে প্রতিদিন বাড়িতে হেনস্থা এবং আক্রান্ত হত, তাতে ভয়ঙ্কর পরিণতি হতে পারে তা আশঙ্কা করেছিলেন স্থানীয় বাসিন্দারা। আর সেই আশঙ্কাই সত্যি হল।লকডাউনের মধ্যে এক প্রতিবন্ধী যুবককে কুপিয়ে খুনের অভিযোগ উঠল বাবা-মা ও ভাইয়ের বিরুদ্ধেই। বৃহস্পতিবার দুপুরে গড়ফার মণ্ডলপাড়ায় এই চাঞ্চল্যকর অভিযোগ শুনে ঘটনাস্থলে গিয়ে হিমশিম খেতে হয় পুলিশকর্মীদেরও। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ওই মৃত যুবকের বাবা মা এবং ভাইকে আটক করেছে পুলিশ। পুলিশের সামনেই ওই বাড়িটি ভাঙ্গচুর করে স্থানীয়রা।

পুলিশ সূত্রে খবর, মৃত যুবকের নাম পূর্ণেন্দু মণ্ডল (৪০)। মাঝেমধ্যেই ওই যুবককে বাড়িতে হেনস্থা করত বাবা মা এবং ভাই। বুধবারও দিনভর ওই মানসিক ভারসাম্যহীন যুবককে বেধড়ক মারধরের অভিযোগ ওঠে পরিবারের বিরুদ্ধে। এমনকি বঁটি দিয়ে তাকে কোপানো হয়, এমন অভিযোগও তুলেছেন স্থানীয়রা। তারা জানিয়েছেন, প্রথমে রক্তাক্ত অবস্থায় দীর্ঘক্ষণ ফেলে রেখে তারপর ওই যুবককে হাসপাতালে নিয়ে যায় অভিযুক্তরা। সেখানে ডাক্তাররা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

বৃহস্পতিবার সকালে মৃত্যুর খবর এলাকায় পৌঁছতেই ক্ষোভে ফেটে পড়েন স্থানীয় বাসিন্দারা। এদিকে ঘটনার পর ঘর থেকে পালাননি অভিযুক্তরা। স্থানীয় সূত্রে খবর পেয়ে অভিযুক্তদের আটক করতে গেলে ওই এলাকায় গেলে বাধার মুখে পড়তে হয় পুলিশকে। উত্তেজিত জনতা অভিযুক্তদের তাঁদের হাতে তুলে দেওয়ার দাবি জানাতে থাকে। কিন্তু পুলিশ তা মানতে চায়নি। ফলে পুলিশকেও আক্রান্ত হতে হয়। এদিকে পুলিশের সামনেই ওই বাড়িও ভাঙ্গচুর করা হয়। এরপর কোনওরকমে অভিযুক্তদের উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ। বাড়িটি সিল করে দেওয়া হয়েছে। আটক অভিযুক্তদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here