পরকীয়া সম্পর্কে আশ্চর্যজনক কিছু তথ্য জেনে নিন

আমাদের ভারত, ৩ ডিসেম্বর: বিবাহবহির্ভূত সম্পর্ক নিয়ে সমাজে বরাবরই একটা কৌতুহল রয়েছে। নৈতিকতার প্রশ্নে এই ধরণের সম্পর্ককে সমাজ মান্যতা দেয় না। কিন্তু একথাও অস্বীকার করলে চলবে না সবক্ষেত্রে বাধ্যতামূলক না হলেও, বহু ক্ষেত্রে পরিস্থিতিই এই ধরনের সম্পর্কের ক্ষেত্রে প্রধান কারন হয়ে দাঁড়ায়। তবে, যে কারণেই হোক বিবাহবহির্ভূত এই ধরনের গোপন সম্পর্ক এদেশে ক্রমশই বেড়ে চলেছে। এক্ষেত্রে শুধু পুরুষরা নন, বহুক্ষেত্রে দেখা গিয়েছে মহিলারাও স্বামী পরিবারকে লুকিয়ে অন্য সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ছেন।

দুটি মানুষের মধ্যে দূরত্বের জেরেই তৃতীয় ব্যক্তি ঢুকে পড়ার অন্যতম প্রধান কারন। মূলতঃ স্বামী-স্ত্রী-র মধ্যে ক্রমশ দূরত্বের কারণেই গোপন সম্পর্কের সংখ্যা বিশ্বের সর্বত্র বেড়েই চলেছে। বিভিন্ন ধরনের সমীক্ষায় এই ধরনের গোপন সম্পর্ক নিয়ে একাধিক অবাক করা তথ্য ধরা পড়েছে।

১ম তথ্য: একটি সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, সমীক্ষায় অংশগ্রহণকারীরা স্বীকার করে নিয়েছেন যে স্ত্রীকে ধোকা দেওয়ার সবচেয়ে সহজ উপায় হল বিজনেস ট্রিপে বা কাজের দোহাই দিয়ে বাইরে গিয়ে সেখানে অবৈধ সঙ্গীর সঙ্গে সময় কাটানো।

২য় তথ্য: মনে করা হয়, বিশ্বে বিবাহবিচ্ছেদের ঊর্ধ্বমুখী হারের অন্যতম প্রধান কারন হিসাবে দেখা হয় গোপন সম্পর্ক। কিন্তু সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে আদতে তা নয়। এর আসল কারণ হল টাকা বা সম্পত্তি।

৩য় তথ্য: অন্য একটি সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, শারীরিক প্রতারণার চেয়ে মানসিক প্রতারণা অনেক বেশি ক্ষতিকর। তৃতীয় ব্যক্তির সঙ্গে শারীরিক ঘনিষ্ঠতার চেয়ে মানসিক ঘনিষ্ঠতা বিবাহতি জীবনকে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত করে।

৪র্থ তথ্য: যৌনসঙ্গমের সময়ে মৃত্যুর একাধিক ঘটনা শোনা যায়। সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, এই ধরনের মৃত্যুর ক্ষেত্রে অধিকাংশই গোপন সম্পর্কে যৌনমিলনে লিপ্ত ছিল।

৫ম তথ্য: আরও একটি সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, বিবাহিত জীবনে থেকে স্বামীকে প্রতারণা করা মহিলাদের সংখ্যা আগের চেয়ে ব্যাপক হারে বেড়েছে। বিশেষজ্ঞদের মতে, মহিলারা আর্থিকভাবে এখন সাবলম্বী বলেই এই সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here