করোনা হলে মুখ্যমন্ত্রীকে জড়িয়ে ধরার বিতর্কিত মন্তব্যে বিজেপি নেতা অনুপমের বিরুদ্ধে এফআইআর

রাজেন রায়, কলকাতা, ২৮ সেপ্টেম্বর: বড় দায়িত্ব পেয়ে স্টেপ আউট করে খেলতে গিয়ে প্রথমেই বিতর্কে জড়িয়ে পড়লেন বিজেপি নেতা অনুপম হাজরা। এর আগেও তার বেফাঁস মন্তব্য এবং কীর্তিকলাপে বিড়ম্বনায় পড়তে হয়েছে দলকে। তারপরেও তার জনসমর্থন দেখে তাকে বিজেপি’র সর্বভারতীয় যুগ্ম-সম্পাদক পদে দায়িত্ব দিয়েছে বিজেপি। আর তারপরেই শনিবার বারুইপুরে গিয়ে বেফাঁস মন্তব্য করে বসেন তিনি।

প্রসঙ্গত, বারুইপুরে দলীয় একটি কর্মসূচিতে যোগ দিতে গিয়েছিলেন বিজেপি নেতা অনুপম হাজরা। সেখানে সর্মথকরা সহ অনুপম হাজরার মুখেও মাস্ক না থাকায় সাংবাদিকরা তাঁর কাছে প্রশ্ন করতেই তিনি বলেন, ‘মুখ্যমন্ত্রীও মাস্ক ব্যবহার করছেন না। আমি ঠিক করে নিয়েছি, আমার যদি করোনা হয়, তা হলে সোজা মুখ্যমন্ত্রীকে গিয়ে জড়িয়ে ধরব।‘ মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে কুরুচিকর মন্তব্যের জেরে শিলিগুড়ি কমিশনারেটে অনুপম হাজরার বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করল রাজ্যের তৃণমূল উদ্বাস্তু সেল।

তৃণমূলের দাবি, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নাম করে অত্যন্ত কুরুচিকর মন্তব্য করেছেন ওই বিজেপি নেতা। রাজ্যের প্রশাসনিক প্রধানের বিরুদ্ধে এমন কুরুচিকর মন্তব্য করার জন্য অবিলম্বে গ্রেফতার করা হোক ওই বিজেপি নেতাকে। অবিলম্বে ওই বিজেপি নেতার বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক ব্যবস্থা না নিলে আগামী দিনে আরও বড় আন্দোলন হবে বলে জানিয়েছে তৃণমূল উদ্বাস্তু সেল।

রাজনৈতিক সহকর্মী হলেও অনুপম হাজরার মন্তব্যে সমর্থন জানাতে পারেননি কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি মুকুল রায়ও। সোমবার সল্টলেকে বিজেপি মুকুল রায় দলীয় কর্মী-সমর্থকদের সঙ্গে দেখা করলে অনুপম হাজরার মন্তব্য নিয়ে তাঁকে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, ‘যাঁরা দায়িত্বপূর্ণ লোক, তাঁদের কোনও মন্তব্য করার আগে সতর্ক থাকা উচিত।’ এদিকে তার বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করা হয়েছে শুনেও আক্রমনাত্মক মেজাজে সোমবার ফের অনুপম বলেন, “যদি আমার বিরুদ্ধে এফআইআর হয়, তবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যতগুলো লাশ কেরোসিন দিয়ে পুড়িয়েছে, ততগুলো এফআইআর তাঁর বিরুদ্ধে হবে।”

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here