বাঘের হানায় সুন্দরবনে ফের মৃত্যু মৎস্যজীবীর

আমাদের ভারত, দক্ষিণ ২৪ পরগণা, ১২ আগস্ট: বাঘের হানায় ফের মৃত্যু হল এক মৎস্যজীবীর। বুধবার সকালে ঘটনাটি ঘটেছে সুন্দরবনের পিরখালির জঙ্গলে। নিহতের নাম হরিপদ মন্ডল(৪৭)। তিন সঙ্গীর সাথে মাছ ও কাঁকড়া ধরতে গিয়ে বাঘের হামলার সম্মুখীন হন এই ব্যক্তি। গত শনিবার গোসাবা থানার বালি দক্ষিণ পাড়া থেকে মাছ ধরার জন্য রওনা দিয়েছিলেন তিনি। এই ঘটনায় এলাকায় নেমে এসেছে শোকের ছায়া।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রের খবর, গত শনিবার বালি দ্বীপ থেকে প্রশান্ত মণ্ডল, প্রণব মণ্ডল ও অরবিন্দ মন্ডলের সাথে মাছ ধরতে জঙ্গলে গিয়েছিলেন হরিপদ। এদিন সকালে সুন্দরবনের পিরখালি জঙ্গলের গাগরাখালির খালে যখন তাঁরা মাছ ধরছিলেন ঠিক তখন একটি বাঘ জঙ্গল থেকে বেড়িয়ে এসে লাফিয়ে পড়ে। হরিপদর ঘাড়ে কামড় বসিয়ে জলের মধ্যে পড়ে যায় বাঘটি। তাঁর সঙ্গীরা বাঘের সাথে লড়াই শুরু করে। বেশ কিছুক্ষণ চলে বাঘে মানুষে টানাটানি। নৌকার দাঁড়, লাঠি দিয়ে বাঘের উপর পাল্টা হামলা করেন হরিপদর সঙ্গীরা। রণে ভঙ্গ দিয়ে শেষ পর্যন্ত হরিপদকে ছেড়ে দিয়ে পালিয়ে যায় বাঘ বাবাজি। রক্তাক্ত অবস্থায় তাঁকে উদ্ধার করে তড়িঘড়ি গোসাবা ব্লক গ্রামীণ হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যান সঙ্গীরা। কিন্তু সেখানে চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। ঘটনার খবর পেয়ে গোসাবা থানার পুলিশ দেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য পাঠিয়েছে।

নিহতের স্ত্রী রিতা মণ্ডল বলেন, “লকডাউনের জেরে কোনও কাজ ছিল না তাই জঙ্গলে গত একমাস ধরে মাছ কাঁকড়া ধরতে যাচ্ছেন স্বামী। আজ দুর্ঘটনা ঘটে গেল।”

অন্যদিকে নিহতের সঙ্গী প্রণব মণ্ডল বলেন, “ এদিন সকালে আমরা জাল তুলছিলাম, ঠিক সেই সময় আচমকা বাঘটি এসে ঝাঁপিয়ে পড়ে হরিপদর উপর, বাঘের সাথে লড়াই করে ওঁকে ছাড়িয়ে এনেছি। কিন্তু বাঁচাতে পারলাম না।”

এ বিষয়ে সুন্দরবন ব্যাঘ্র প্রকল্পের এফডি তাপস দাস বলেন, “একটা ঘটনার কথা শুনেছি, তবে বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।”

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here