পারিবারিক ঝামেলা মেটাতে গিয়ে পুলিশের হাতে আক্রান্ত তৃণমূল নেতা সহ ৫ মহিলা, উত্তেজনা ভাটপাড়ার পদ্মপুকুরে

আমাদের ভারত, ব্যারাকপুর, ২২ নভেম্বর: পারিবারিক বিবাদ মেটাতে গিয়ে পুলিশি তান্ডবের অভিযোগ উঠল। ঘটনায় তৃণমূল নেতা সহ ৫ জন মহিলা আহত হয়েছেন। প্রতিবাদে পুলিশকে ঘিরে বিক্ষোভ। ভাটপাড়া থানার ৬ নম্বর ওয়ার্ডের পদ্মপুকুর ঝিলমাঠ এলাকার ঘটনা।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, এলাকার বাসিন্দা আলোক করের ছেলে অনিকেতের গতকাল জন্মদিনের অনুষ্ঠান ছিল। এরই মধ্যে আলোকের ভাই পমের স্ত্রীকে নিয়ে অশান্তি বেঁধে যায়। অনুষ্ঠান চলাকালীন তিনি, তার বোন এবং মা আসেন। অনুষ্ঠানের মাঝেই দাম্পত্য কলহের জেরে পমের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করতে উদ্যত হয় তার স্ত্রী। অভিযোগ, পমের শ্যালিকা জোর করে তার বোনকে বাড়ি থেকে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। তখন আলোকের স্ত্রী টুম্পা তার দেওরের স্ত্রীকে বোঝাতে যায়। তখন পমের শ্যালিকা টুম্পাকে চুলের মুঠি ধরে মারধর করে বলে অভিযোগ।

এরপর কর পরিবারের সদস্যরা পমের স্ত্রী, শ্যালিকা ও শাশুড়িকে ঘর বন্ধ করে আটকে রাখে। উত্তেজনার খবর পেয়ে ভাটপাড়া থানার এস আই কিশোর রজক ঘটনাস্থলে আসে। অভিযোগ, এস আই কিশোর রজক মহিলাদের এলোপাথাড়ি মারধর করে। তাতে পাঁচজন মহিলা আহত হয়েছেন। এমনকি ওই পুলিশ অফিসারের হাতে আক্রান্ত হলেন স্থানীয় তৃণমূল যুব নেতা সন্তু রঞ্জন পাল। এরপর ক্ষুব্ধ জনতা ওই পুলিশ অফিসারকে ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখায়। তীব্র উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়লে রাফ-সহ ভাটপাড়া থানার আই সি অনুপম মন্ডল ঘটনাস্থলে গিয়ে তপ্ত পরিস্থিতি সামাল দেয়। তবে পুলিশের বিরুদ্ধে আনা মারধরের অভিযোগ সম্পর্কে মুখ খোলেননি তিনি।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here