শালবনিতে বাঘ নয়, নেকড়ের পায়ের ছাপ 

আমাদের ভারত, মেদিনীপুর, ১৫ জুন: রবিবার বিকেলের পর শালবনি এলাকায় একটি বন্য জন্তুকে দেখে বাঘের আতঙ্ক ছড়িয়েছিল। আজ সোমবার  বনদপ্তরের কর্মীরা পায়ের ছাপ পরীক্ষা করে জানিয়ে দেন জন্তুটি বাঘ ছিল না। পায়ের দাগগুলি ধূসর নেকড়ের। গতকাল বিকেল সাড়ে পাঁচটা নাগাদ শালবনি ব্লকের তিলাবনি জঙ্গল সংলগ্ন রাস্তায় ওই গ্রামের বাসিন্দা খগেন্দ্র মাহাতো বাঘের মতো একটি জন্তু দেখে অন্যান্য গ্রামবাসীদের ডেকে নিয়ে যাব। কিন্তু জন্তুটি ততক্ষণে গা-ঢাকা দিলেও তার পায়ের ছাপ দেখে এলাকায় বাঘের আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। খবর দেওয়া হয় বনবিভাগের ভাদুতলা ও পিড়াকাটা রেঞ্জে।

পিড়াকাটার রেঞ্জার পাপন মহন্ত এবং একজন বন্যপ্রাণী গবেষক আজ সকালে  পায়ের ছাপ পরীক্ষা করে জানিয়ে দেন জন্তুটি ছিল একটি নেকড়ে। তারা জানান, নেকড়ের পায়ের ছাপ সাধারণত এরকম কোনাকুনি আকারের হয়ে থাকে এবং তা বাঘের পায়ের ছাপের থেকে অনেক ছোট হয়।

বন্যপ্রাণী গবেষক রাকেশ সিংহদেব বলেন, জন্তুটির বিজ্ঞানসম্মত নাম ক্যানিস লুপাস। শালবনি এলাকায় বিলুপ্তপ্রায় প্রজাতির এই নেকড়ে এখনো রয়েছে এটা খুবই ভালো খবর। 

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here