করোনা মোকাবিলায় সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে বাড়িতে তালা দিয়ে জমিতে অস্থায়ী কুটিরে বাস গোটা গ্রামের

আমাদের ভারত, ১৮ এপ্রিল : করোনা মোকাবিলায় লকডাউন চলছে দেশে। তার মধ্যে ক্রমেই বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। দ্বিতীয় দফায় লকডাউনের মেয়াদ বাড়ানো হয়েছে। কিন্তু তবুও মানুষ সতর্ক হয়নি। অকারণেই বাড়ি থেকে বের হতে দেখা যাচ্ছে অনেককেই। কিন্তু এরই মধ্যে লকডাউনের নির্দেশিকা মেনে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার অনন্য নজির গড়ল তেলেঙ্গানার কামারেড্ডি জেলার কোমাটা পাল্লী গ্রামের গ্রামবাসীরা। করোনা মোকাবিলায় সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে গ্রামে নিজেদের ঘরে তালা ঝুলিয়ে নিজেদের কৃষিজমিতে অস্থায়ী বাড়ি তৈরি করে সেখানে কোয়ারিন্টিন করছেন তারা নিজেদের।

এই গ্রামের প্রায় সকলেই কৃষি কাজের সঙ্গে যুক্ত। তাই লকডাউন ঘোষণা হতেই সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে নিজের নিজের জমিতে অস্থায়ী ঘর বানিয়ে থাকছেন তারা। শুধু থাকাই নয় পাশাপাশি কৃষিকাজ চালিয়ে যাচ্ছেন সমানভাবে।

গ্রাম থেকে কৃষিজমি প্রায় দুই থেকে তিন কিলোমিটার দূরে। তাই গ্রামের সব পরিবারই নিজেদের জিনিসপত্র গুছিয়ে জমিতে কোয়ারেন্টিন হয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণার পরই তারা ২১ দিনের জন্য জমিতে বসবাস শুরু করেন। দ্বিতীয় দফায় লকডাউনের মেয়াদ বৃদ্ধির পরেও তারা এই অস্থায়ী ঘরেই বাস করছেন। গ্রামবাসীরা বলেছেন, গ্রামের কয়েকজন জমিতে প্রতিবছরই অস্থায়ী ঘর করেন। এবার করোনার ভয় গ্রামের সকলেই জমিতে বাস করা শুরু করেছেন। পরিবারের শিশুরা যাতে কোনভাবে সংক্রমিত না হয়, পরিবার যাতে সুস্থ থাকে সেই জন্যেই এই ব্যবস্থা গ্রহণ করেছেন তিরখ।

ওই গ্রামের মোট ১৫৫টি পরিবারের বাস। কৃষি জমিতে অস্থায়ী ছোট্ট কুঁড়েঘরে যদি কোন কিছু ফুরিয়ে যায় তাহলে বাইরে থেকে তা কিনে ফের জমিতেই চলে যাচ্ছেন গ্রামবাসীরা। সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে এই অভিনব উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন তারা। শহরের মানুষকে ঘরে ঢোকাতে প্রয়োজন হচ্ছে পুলিশের।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here