পুলিশ সুপারের নাম ভাঙিয়ে পুলিশ আধিকারিকের কাছ থেকে তোলা আদায়, ধৃত নদিয়ার যুবক

আমাদের ভারত, বনগাঁ, ৫ ডিসেম্বর: ফোন করে পুলিশ সুপারের নাম ভাঙিয়ে পুলিশ আধিকারিকের কাছ থেকে টাকা আদায় করার অভিযোগ উঠল নদিয়ার এক যুবককের বিরুদ্ধে। অভিযোগ পাওয়ার পর উত্তর ২৪ পরগণার বনগাঁ থানার পুলিশ নদিয়ার কৃষ্ণনগর এলাকা থেকে ওই প্রতারককে গ্রেফতার করে। ধৃত প্রতারকের নাম পলাশ মণ্ডল। বাড়ি নদিয়ার কৃষ্ণনগর এলাকায়। সোদপুর থানা এলাকায় একটি বাড়ি ভাড়া নিয়ে এই কর্মকাণ্ড চালাচ্ছিল বলে পুলিশ জানিয়েছে।

অভিযোগ, জেলার পুলিশ সুপারের নাম ভাঙিয়ে বনগাঁর ট্রাফিক ওসির কাছ থেকে এক লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেয় পলাশ মণ্ডল। পুলিশ সূত্রের খবর, প্রতারক পলাশ গত মাসের প্রথম দিকে পুলিশ সুপারের নাম ভাঙিয়ে বনগাঁর ট্রাফিক ওসির বিধুর সরকারের কাছে টাকার জন্য ফোন করে। গত মাসের ৬ তারিখে বনগাঁর এমটিও বিধুর সরকারের কাছ থেকে প্রথমে ৬০ হাজার টাকা নেয়। ফের ফোন করে ৪০ হাজার টাকা দাবি করে। গত মাসের ৮ তারিখে এসে ফের ৪০ হাজার টাকা নেয়। ফের পুলিশ সুপারের নাম করে টাকার দাবি করলে ট্রাফিক ওসির সন্দেহ হয়। ঘটনার কথা পুলিশ সুপারের কাছে জানতে চাইলে তিনি এমন ঘটনা অস্বীকার করেন। এরপর ঘটনার বর্ণনা দিয়ে বনগাঁ থানায় অভিযোগ দায়ের করেন ট্রাফিক ওসি। এরপর পুলিশ তদন্তে নেমে কৃষ্ণনগর থেকে তাকে গ্রেফতার করে। পুলিশের জেরায় সে টাকা নেওয়ার ঘটনা স্বীকার করে।   

জেরা করে পুলিশ জানতে পারে, এর আগেও ধৃত বিভিন্ন মন্ত্রীর আপ্তসহায়কের নাম ভাঙিয়ে অনেক সিনিয়র অফিসারদের কাছ থেকে টাকা হাতিয়েছে। ধৃতকে আজ বনগাঁ মহকুমা আদালতে তোলা হলে বিচারক তিন দিনের পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দেয়। 

বনগাঁ পুলিশ জেলার এসপি তরুণ কুমার হালদার জানান, আমরা তদন্ত শুরু করে আসামিকে গ্রেফতার করেছি। খতিয়ে দেখা হচ্ছে আরো অন্য কোন প্রতারণার সঙ্গে সে যুক্ত আছে কি না।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here