নভেম্বর পর্যন্ত বিনামূল্যে রেশন, উপকৃত ৮০ কোটি, দেশবাসীকে ঘোষণা প্রধানমন্ত্রীর

আমাদের ভারত, ৩০ জুন: আগামী নভেম্বর মাস পর্যন্ত বিনামূল্যে রেশন দেওয়ার কথা ঘোষণা করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। এরজন্য সরকারের খরচ হবে ৯০ হাজার কোটি টাকা। এরফলে সরাসরি উপকৃত হবে দেশের ৮০কোটি মানুষ। করোনার মত মহামারীর সাথে লড়াই করছে দেশের মানুষ। তাই সেই লড়াই চালিয়ে যেতে গরিব মানুষের কথা ভেবেই সরকারের এই সিদ্ধান্ত বলে জানান মোদী। একই সঙ্গে আনলক-২ এ প্রবেশ করছে দেশ আগামীকাল থেকে। ফলে করোনার বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যেতে এই সময় আরও বেশি সতর্ক হবার পরামর্শও দিয়েছেন তিনি।

জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ দিতে গিয়ে আজ মোদী বলেন,
“আমরা আনলক ২-এ প্রবেশ করছি। একই সঙ্গে আমরা সেই মরশুমেও প্রবেশ করছি যখন সর্দি, কাশি, জ্বরের তীব্রতা বাড়ে। তাই নিজের খেয়াল রাখুন।” তিনি বলেন, করোনার ক্ষেত্রে বিশ্বের অন্য অনেক দেশের তুলনায় ভারতের অবস্থা অনেকটাই ভালো। সঠিক সময় লকডাউন ভারতের লাখ লাখ মানুষের প্রাণ বাঁচিয়েছে।

কিন্তু এদিন তিনি আনলক ওয়ান শুরু হতেই করোনা সংক্রমনের হার বৃদ্ধি নিয়েও উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। তিনি বলেছেন, “লকডাউনে নিয়ম বিধি মানলেও আনলক ওয়ান শুরু হতেই মাস্ক ব্যবহার, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা, কিছু সময় অন্তর হাত ধোয়ার মত বিষয়গুলিতে মানুষের উদাসীনতা বেড়েছে। অথচ এই সময় মানুষকে আরো বেশি বেশি করে সতর্ক থাকতে হবে। আর সেই জন্যেই চিন্তাও বেড়েছে।”

আনলক ওয়ান থেকেই সুরক্ষা বিধি অনেক জায়গায় উপেক্ষিতে থেকে যাচ্ছে। এক্ষেত্রে স্থানীয় প্রশাসনকে কড়া হবার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। মোদীর কথায়, “ভারতে গ্রামের প্রধান হোক বা দেশের প্রধান কেউ নিয়ম নীতির ঊর্ধ্বে নয়। তাই করোনা মত মহামারী থেকে মানুষের প্রাণ বাঁচাতে স্থানীয় প্রশাসনকে কড়া হতে হবে। দেখতে হবে মানুষ করোনা মোকাবিলায় সব নিয়ম সঠিক ভাবে মানছেন কিনা”।

মোদী বলেন, এত বড় একটা মহামারীর সঙ্গে লড়াই চালাতে গিয়ে কেন্দ্র সরকার, রাজ্য সরকার সহ সিভিল সোসাইটি সবাই মিলে চেষ্টা করেছে যাতে দেশে কেউ যেনো ক্ষুধার্থ না থাকে। মোদীর কথায় সঠিক সময় ও সংবেদনশীলতার মাধ্যমে সিদ্ধান্ত নিলে যে কোন বড় সংকট মোকাবিলার ক্ষমতা কয়েক গুণ বেড়ে যায়।

তিনি বলেন, গত তিন মাস ৮০ কোটি মানুষকে ভারত সরকার বিনামূল্যে খাদ্যশস্য দিয়েছে। সারা বিশ্বে এটা একটা নজির। কারণ এই বিপুল জনসংখ্যার দেশে এইভাবে বিনামূল্যে খাদ্যশস্য বন্টন বিশ্বে উদাহরণ তৈরি করেছে। প্রধানমন্ত্রী এদিন ঘোষণা করেন, নভেম্বর পর্যন্ত এই প্রকল্প চালিয়ে নিয়ে যাওয়া হবে। অর্থাৎ বিনামূল্যে প্রধানমন্ত্রী গরিব কল্যাণ অন্ন যোজনার বিস্তারের ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী। ৫ কিলো চাল গমের সঙ্গে মাসে ১ কিলো ছোলাও দেওয়ার কথাও ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী।

মোদী বলেন, জুলাই মাস থেকে কার্যত উৎসবের মরশুম শুরু হয়ে যায়। আর সেই সময় মানুষের খরচ বাড়ে। তাই সেই কথা মাথায় রেখেই সরকার আগামী নভেম্বর মাস পর্যন্ত বিনামূল্যে রেশন দেওয়ার কথা ঘোষণা করল।

একই সঙ্গে তিনি এক দেশ এক রেশন কার্ড শীঘ্রই সর্বত্র চালু করার কথাও জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, ইতিমধ্যেই সরকার গরিব কল্যাণ যোজনায় ২ লক্ষ কোটি টাকা বরাদ্দ করেছে। ৯ কোটি কৃষকের অ্যাকাউন্টে ইতিমধ্যেই ১৮ হাজার কোটি টাকা গেছে। গ্রামে শ্রমিকদের কাজের সুযোগ তৈরি করতে ৫০ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ হয়েছে। সেই কাজও জোরকদমে শুরু হয়েছে। এবার গুরুপূর্ণিমা, রাখী, স্বাধীনতা দিবস, নবরাত্রি, দুর্গাপুজো, দীপাবলি, ছট পূজোর মত একের পর এক উৎসব আসছে। ফলে এই উৎসবের দিনে মানুষকে কিছুটা স্বস্তি দিতে নভেম্বরের শেষ পর্যন্ত বিনামূল্যে রেশন দেওয়ার কথা ঘোষণা করলেন প্রধানমন্ত্রী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here