বন্ধুকে বেঁধে রেখে, জন্মদিনেই কিশোরীকে গণধর্ষণ ছয়জনের

আমাদের ভারত,১ ডিসেম্বর:আবার গণধর্ষণ। হায়দ্রাবাদের পরে এবার কোয়েম্বাটুর। নিজের জন্মদিনেই গণধর্ষণের শিকার একাদশ শ্রেণির এক ছাত্রী। বন্ধুর হাত পা বেঁধে রেখে তার সামনেই কিশোরীকে ধর্ষণ করলো ছয় জন। শুধু ধর্ষণ নয় ধর্ষণের গোটা পর্বের ভিডিও করে রেখেছে দুষ্কৃতীরা। অভিযোগ দায়েরের পর চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। বাকিদের খোঁজে চলছে তল্লাশি।

জানা গেছে ২৬ নভেম্বর রাত আটটা নাগাদ কিশোরীর জন্মদিন উপলক্ষে তার এক বন্ধুর সঙ্গে কোয়েম্বাটুরের ঈশ্বরনগরের একটি পার্কে গিয়েছিল সে। রাত নটা নাগাদ যখন তারা ফিরছে তখন ৬ জন তাদের পথ আটকায়। কিশোরীর বন্ধুকে পার্কের একটি জায়গায় নিয়ে গিয়ে বেধড়ক মারধর করে দড়ি দিয়ে বেধে রাখে দুষ্কৃতীরা। এরপর তার সামনেই ওই কিশোরীর উপর চলে নির্যাতন। ধর্ষণের পর তাদের পার্কে ফেলে রেখে পালিয়ে যায় দুষ্কৃতীরা। কিশোরী এবং তার বন্ধুকে পথ আটকানো থেকে শুরু করে, বন্ধুকে মারধর এবং বেঁধে রাখা সহ ধর্ষণের ঘটনা ক্যামেরা বন্দি করে দুষ্কৃতীরা। ঘটনার পর কোনোক্রমে কিশোরী ও তার বন্ধু বাড়িতে এসে পৌঁছান। পরের দিন গোটা ঘটনা জানিয়ে পুলিশে ডায়েরি করে ওই কিশোরী ও তার পরিবার।

ঘটনার তদন্তে নেমে পুলিশ টি রাহুল, আর প্রকাশ,এস কার্তিকেয়, এস নারায়নমূর্তিকে গ্রেফতার করে। ধৃতদের জেরা করে বাকি দুই অভিযুক্তের খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছে পুলিশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here