গোপীবল্লভপুরে প্রেমিকের বাড়ির সামনে ধর্নায় বসে প্রেমিককে বিয়েতে রাজি করাল প্রেমিকা

অমরজিৎ দে, ঝাড়গ্রাম, ২২ জুন: প্রেমের কাছে সুর নরম প্রেমিকের। প্রথমে প্রেমিকাকে বিয়ে করতে অস্বীকার করে প্রেমিক। তারপর পাঁচ বছরের ভালোবাসা ফিরে পাওয়ার দাবিতে প্রেমিক বিনন্দ রানার বাড়ির সামনে ধর্নায় বসে প্রেমিকা মানসী রানা। অবশেষে বিয়ে করতে রাজি হল বিনন্দ। আজই হবে রেজিস্ট্রির মাধ্যমে বিয়ে।

পাঁচ বছরের ভালোবাসা ফিরে পাওয়ার দাবি নিয়ে বেলদুয়ার গ্ৰামে প্রেমিক বিনন্দ রানার বাড়ির সামনে ধর্নায় বসল প্রেমিকা মানসী রানা। ঘটনাটি ঝাড়গ্রাম জেলার গোপীবল্লভপুর ১ নম্বর ব্লকের কেঁদুগাড়ি ৭ নং অঞ্চলের বেলদুয়ার গ্রামে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বেলদুয়ার গ্রামে প্রেমিকা মানসী রানা ও প্রেমিক বিনন্দ রানার বাড়ি। দুজনের মধ্যে পাঁচ বছর ধরে ভালোবাসার সম্পর্ক রয়েছে। বর্তমানে প্রেমিক বিনন্দ রানা প্রেমিকা মানসী রানাকে বিয়ে করতে অস্বীকার করে। বিনন্দর দাবি, দাদার বিয়ে না হওয়া পর্যন্ত সে মানসীকে বিয়ে করতে পারবে না। সেই কথা বিশ্বাস হয়নি মানুষের। তারপরেই রবিবার থেকে প্রেমিকের বাড়ির সামনে ধর্নায় বসেছে প্রেমিকা মানসী রানা তার পাঁচ বছরের ভালোবাসা ফিরে পাওয়ার দাবি নিয়ে।প্রেমিকা মানসী রানার ধর্নার খবর ছড়িয়ে পড়তে এলাকায় মানুষের ভিড় জমতে থাকে। প্রেমিকার ধর্না তোলার জন্য পরিবারের পক্ষ থেকে বিভিন্নভাবে বোঝানোর চেষ্টা করা হয়। কিন্তু নিজের জেদে অনড় প্রেমিকা। প্রেমের মর্যাদা দিয়ে বিয়ে করার কথা যতক্ষণ না প্রেমিক স্বীকার করবেন ততক্ষণ প্রেমিকের বাড়ির সামনে ধর্নায় বসে থাকবেন প্রেমিকা মানসী রানা। অবশেষে সুর নরম করে প্রেমিকের পরিবার। তারা বিয়েতে মত দেন বিনন্দ ও তাতে রাজি হয়ে যায়। আজকে বিকেলে রেজিস্ট্রির মাধ্যমে বিয়ে হবে জানায় মানসী। এই খবর পাওয়ার পরই খুশি মানসী ও তার পরিবার।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here