“তৃণমূল সরকার রাজ্যের কৃষকদের সাথে ঐতিহাসিক অবিচার ও নিষ্ঠুর তামাশা করেছে” ফের কড়া চিঠি রাজ্যপালের

আমাদের ভারত, ১০ আগস্ট: প্রধানমন্ত্রী কিষান নিধি প্রকল্প থেকে রাজ্যের কৃষকদের বাদ রেখে তাদের ওপর অবিচার করা হচ্ছে। এই অভিযোগ জানিয়ে সোমবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কড়া ভাষায় চিঠি লিখেছেন রাজ্যপাল। রাজ্য সরকারের এই সিদ্ধান্তকে কৃষকদের প্রতি তামাশা বলেও কটাক্ষ করেছেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী কিষান নিধি প্রকল্পে গতকাল রবিবার দেশের সাড়ে ৮ কোটি কৃষকের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে ১৭ হাজার ১০০ কোটি টাকা পাঠিয়েছেন। অথচ তা থেকে বঞ্চিত বাংলার কৃষকরা। কারণ এই প্রকল্পের মধ্যে তারা নেই। তাই তারা এই টাকা পাননি। সোমবার এই নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কড়া ভাষায় চিঠি লিখেছেন রাজ্যপাল। চিঠিতে তিনি লিখেছেন, বাংলার কৃষকদের এই প্রকল্প থেকে বাদ দিয়ে ঐতিহাসিক অবিচার করা হচ্ছে তাদের বিরুদ্ধে। রাজ্য সরকারের এই সিদ্ধান্তকে ক্রুয়েল জোক বলেও কটাক্ষ করেছেন তিনি।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য ২০১৯এর লোকসভা ভোটের মাস ছয়েক আগে এই প্রকল্পের সূচনা করে মোদী সরকার। প্রকল্প অনুযায়ী দেশের চাষীদের অ্যাকাউন্টে বছরে ৬ হাজার টাকা করে পাঠায় কেন্দ্র। কিন্তু মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় স্পষ্ট জানিয়েছিলেন বাংলা এই প্রকল্পের সঙ্গে যুক্ত হবে না ঠিক যেমন আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্পের সঙ্গেও বাংলা যুক্ত হয়নি। প্রধানমন্ত্রী কিষান নিধি যোজনা থেকে রাজ্যের নাম প্রত্যাহার করে নিয়েছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। নাম তুলে নেওয়ার প্রেক্ষিতে তার বক্তব্য ছিল, ” ৪০ টাকা দিয়ে ছবি লাগিয়ে রাজনীতি করবে ওরা সেটা আমি হতে দেব না ওদের টাকার দরকার নেই। আমরা কি ভিকিরি ৬০ টাকা দিতে পারলে ১০০ টাকাও দিতে পারব।” রাজ্য সরকার কৃষক বন্ধু প্রকল্প ঘোষণা করে।

কিন্তু, এদিন রাজ্যপাল মুখ্যমন্ত্রীকে দেওয়া চিঠিতে লিখেছেন, “এই প্রকল্পের পুরো টাকাটাই কেন্দ্র দেয়। আর সেই টাকা সরাসরি চাষীদের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে ঢুকে যায়। মাঝে কেউ নেই কমিশন নেওয়ারও। ফলে আমি তো বুঝতে পারছি না রাজ্য সরকার কেন এই প্রকল্পে বাংলার কৃষকদের অন্তর্ভুক্ত করছে না?”

মোদী সরকার যখন ৬০০০ টাকা কৃষকদের অ্যাকাউন্টে পাঠানোর কথা ঘোষণা করেছিল, তখন অনেকেই মনে করেছিলন রাজ্য সরকারের ৬০০০ এবং কেন্দ্র সরকারের ৬০০০ মিলিয়ে চাষিরা মোট ১২ হাজার টাকা পাবেন। কিন্তু কিষান নিধি যোজনা থেকে নাম তুলে নেওয়ার ফলে সেই ৬০০০ টাকা থেকে বঞ্চিত হয়েছেন রাজ্যের কৃষকরা। এই প্রসঙ্গও চিঠিতে তুলেছেন রাজ্যপাল। মুখ্যমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে রাজ্যপাল বলেছেন, “আমি আপনার কাছে আর্জি জানাচ্ছি এই অবিচার বন্ধ করুন”।

শুধু রাজ্যপাল নয়, বিজেপির নেতারাও এই প্রকল্পে যুক্ত না হবার জন্য রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে তীব্র সমালোচনায় মুখর হয়েছেন। বারবার একাধিক জনসভায় বিজেপি নেতৃত্ব বাংলার কৃষকরা যে টাকা পাচ্ছেন না সে বিষয়ে বলেছেন। তাদের অভিযোগ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় শুধুই তোষণের রাজনীতি আর ভোট বোঝেন। বাংলার কৃষক মজুর সাধারণ মানুষের দুর্দশা বোঝেন না। এবার রাজ্যপাল এই বিষয়ে সরব হলেন।তবে রাজ্যপালের চিঠি নিয়ে এখনও পর্যন্ত সরকারের তরফে কোনও প্রতিক্রিয়া দেওয়া হয়নি।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here