মন্দিরের নিরাপত্তায় হরিণঘাটা থানায় মাস পিটিশন বিশ্ব হিন্দু পরিষদের

মন্দিরের নিরাপত্তায় হরিণঘাটা থানায় মাস পিটিশন বিশ্ব হিন্দু পরিষদের

নীল বনিক, আমাদের ভারত, ১৫ আগস্ট: হরিণঘাটায় হিন্দু মন্দিরগুলির নিরাপত্তার দাবিতে মাস পিটিশান জমা দিল বিশ্বহিন্দু পরিষদ। সংগঠনের নদীয়া জেলার নেতা পার্থপ্রতিম নন্দী অভিযোগ করেন, সোমবার রাতে নদীয়ার হরিণঘাটায় দু’টি মন্দিরে আপত্তিকর কিছু মাংস ফেল যায় একদল দুষ্কৃতি। তারপর থেকেই গোটা হরিণঘাটা চত্বর পুরোপুরি থমথমে। হরিণঘাটা থানার পুলিশ দুটি মন্দিরের সামনে গত দু’দিন পাহারা বসায়। তাতেই আপত্তি নদীয়া জেলা বিশ্বহিন্দু পরিষদের।

সংগঠনের নদীয়া জেলার নেতা বলেন, মন্দিরে মাংস ফেলার জন্য দোষিকে শনাক্ত করেছে স্থানীয় মানুষ। কিন্তুু তা সত্বেও তাকে পুলিশ গ্রেফতার করেনি। উল্টে সংগঠনের তিনজনকে প্রথমে পুলিশ আটক করে। তারপর বিশ্ব হিন্দু পরিষদের আইনি সংগঠন আইনি টোলের সাহায্যে তাদের মুক্ত করা হয়। হরিণঘাটা থানা পক্ষপাতিত্ব করছে বলে অভিযোগ করেন পার্থপ্রতিম নন্দী। যারজন্যই বৃহস্পতিবার হরিণঘাটার সমস্ত হিন্দু সম্প্রদায়ের মানুষকে নিয়ে থানায় একটি মাস পিটিশান জমা দেওয়া হয় বলে জানান তিনি। মন্দিরে মাংস ফেলার মতো জঘন্য কাজের জন্য দোষিদের গ্রেফতারের দাবি জানায় বিশ্ব হিন্দু পরিষদ। না হলে আগামী দিনে নদীয়া জেলা বিশ্ব হিন্দু পরিষদ বৃহত্তর আন্দোলনে নামবে বলে জানান পার্থপ্রতিম নন্দী।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

six + nineteen =