সম্প্রীতি হচ্ছে বিজেপির ঐতিহ্য: জয়

আমাদের ভারত, হাওড়া, ২৮ সেপ্টেম্বর: সিপিএম এবং তৃণমূল বাংলাটাকে হিন্দু মুসলমানে ভাগ করে দিচ্ছে। যার ফলে সম্প্রীতি নষ্ট হচ্ছে। বিজেপির প্রধান কাজ হবে  হিন্দু মুসলমানের ভালোবাসার সম্প্রীতি আবার ফিরিয়ে আনা। কারণ সম্প্রীতি হচ্ছে বিজেপির ঐতিহ্য। রবিবার পাঁচলার গোবিন্দপুরে বিজেপির দলীয় কার্যালয়ের উদ্বোধন করতে গিয়ে এইভাবে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির বার্তা দিলেন বিজেপির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য জয় বন্দ্যোপাধ্যায়।

এদিন জয় বলেন, দুর্গা পূজার বিসর্জন ও মহরম এবং সরস্বতী পূজা ও নবী দিবস একসাথে পালন করে বাংলায় সম্প্রীতির নজির সৃষ্টি করব। তিনি বলেন, অন্য রাজ্যের মানুষ রাতে নির্ভয়ে সিনেমা দেখতে পারেন কিন্তু এই রাজ্যে সেটা অসম্ভব, যার কারণে রাজ্যের
সিনেমাহলগুলোতে নাইট শো বন্ধ হয়ে গেছে। তবে বিজেপি ক্ষমতায় আসার পর আবার মানুষ নির্ভয়ে নাইট শো’তে সিনেমা দেখতে যেতে পারবেন বলে দাবি করেন জয়। এদিন তিনি বলেন, রাজ্যে অশান্তি ক্রমশঃ মাথাচাড়া দিয়ে উঠছে। আর রাজ্যেকে শান্ত করাটাই বিজেপির প্রথম কাজ আর আমরা পাঁচলা থেকেই সেই কাজটা শুরু করব, কারণ এখানে অশান্তি অনেক বেশি। জয় বলেন, কংগ্রেস সিপিএমের পর তৃণমূলের ঢোল ফেটে গেছে। এখন আর দিদির ঢোল বাজে না। এবার রাজ্যে বিজেপির ঢোল বাজবে আর সেইজন্য সকলকে বিজেপির ছাতার নীচে আসার আহ্বান জানান জয় বন্দ্যোপাধ্যায়।

এদিন জয় বলেন, কংগ্রেস সিপিএম তৃণমূলের খাবার খেয়ে আপনাদের বদহজম হয়ে গেছে আর এবার বিজেপির খাবারের স্বাদ নিয়ে দেখুন পাথক্যটা বুঝতে পারবেন। এদিন জয় বলেন, এবারের পুজোয় করোনা আর তৃণমূল আতঙ্কে মানুষের পূজো ভালো কাটবে না এটা আমরা জানি। কিন্তু ২০২১ এ বিজেপি ক্ষমতায় আসার পর বাংলার মানুষ আনন্দে পুজো কাটাবে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here