যুগান্তকারী পদক্ষেপ! দেশবাসীর জন্য হেল্থ আইডি-র ঘোষণা প্রধানমন্ত্রীর, স্বাস্থ্য পরিষেবায় বিশেষ সুবিধা গরিব ও মধ্যবিত্তের

আমাদের ভারত, ২৭ সেপ্টেম্বর:দেশের স্বাস্থ্য পরিষেবার অগ্রগতিতে যুগান্তকারী পদক্ষেপ করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। দেশের মানুষের জন্য ডিজিটাল স্বাস্থ্য পরিচয় পত্র আনছে কেন্দ্র। সোমবার আয়ুষ্মান ভারত ডিজিটাল মিশনের সূচনা করলেন প্রধানমন্ত্রী। একটি ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানের মাধ্যমে প্রত্যেক দেশবাসীর জন্য হেল্থ আইডি কার্ডের ঘোষণা করলেন তিনি। এই হেল্থ আইডি কার্ড আসলে এক একজনের হেল্থ অ্যাকাউন্ট।

এই হেল্থ আইডি কার্ড থেকে কি সুবিধা পাবেন দেশে বাসী? মোদী জানান, গরিব এবং মধ্যবিত্তদের সঠিক স্বাস্থ্য পরিষেবা পেতে এই আইডি কার্ডটি সাহায্য করবে। এই ডিজিটাল স্বাস্থ্য পরিচয় পত্রের মাধ্যমে শরীরে কোথায় কোন রোগ বাসা বেঁধে আছে, কোন রোগ আগে ছিল, তার সমস্ত খতিয়ান থাকবে এই পরিচয় পত্রে। যাতে অসুস্থ হলে ওই একই পরিচয় পত্রে সমস্ত স্বাস্থ্য ইতিহাস হাতে পেয়ে যায় চিকিৎসা প্রদানকারী সংস্থা।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আজ খুব গুরুত্বপূর্ণ দিন। দেশের স্বাস্থ্যপরিষেবাকে মজবুত করার জন্য যে পদক্ষেপ করা হয়েছিল তা আজ বড় মোড় নিতে চলেছে। এটা একটি অভূতপূর্ব সময়। মিশন আয়ুষ্মান দেশের স্বাস্থ্য পরিষেবায় ব্যাপক পরিবর্তন এনেছে। মোদী বলেন, এটি এমন একটি পরিষেবা শুরু হল যা স্বাস্থ্য ক্ষেত্রে যুগান্তকারী পরিবর্তন আনতে পারে। আয়ুষ্মান ভারত রোগীর সঙ্গে হাসপাতালের যে সম্পর্ক তৈরি করেছিল, প্রযুক্তির সাহায্যে এই পরিষেবা আরো গতি পাবে।

আয়ুষ্মান ভারত ডিজিটাল মিশন এই প্রকল্পটির মূল উদ্দেশ্য ভারতীয় নাগরিকদের স্বাস্থ্য পরিচয় পত্র তৈরি করা, যা তাদের হেল্থ অ্যাকাউন্ট বা স্বাস্থ্য সংক্রান্ত বিষয়ে হিসেবের খাতা হিসেবে গণ্য হবে। যাতে মোবাইলের মাধ্যমে তথ্য ভরে দেওয়া যাবে আর এই হিসাবের খাতা স্বাস্থ্য সংক্রান্ত পরিষেবা দেওয়ার সময় কাজে লাগবে পরিষেবা প্রদানকারীদের।

ডিজিটাল যুগে ভারত যে কতটা এগিয়েছে তা বোঝাতে প্রধানমন্ত্রী ইউপিআই ও কোউইনের উল্লেখ করেন। গোটা দেশের টিকাকরণ পরিষেবার প্রশংসাও করেন প্রধানমন্ত্রী।

3 মন্তব্যসমূহ

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here