“হিন্দুদের ধর্মনিরপেক্ষ থাকতে বাধ্য করা হয়েছে”, জন্ম নিয়ন্ত্রণ বিল নিয়ে যোগী সরকারের পাশে শিবসেনার সঞ্জয় রাউত

আমাদের ভারত, ১৯ জুলাই:শিবসেনার মুখপত্রের সামনা’তে নিজের সাপ্তাহিক কলমের উত্তরপ্রদেশের যোগী আদিত্যনাথ সরকারের ঘোষিত জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণ সংক্রান্ত পদক্ষেপকে সমর্থন করলেন শিবসেনা নেতা সঞ্জয় রাউত।
উত্তরপ্রদেশ সরকারের এই পদক্ষেপের জন্য যোগীকে শুভেচ্ছা জানানো উচিত বলেও মন্তব্য করেছেন শিবসেনার এই রাজ্যসভার সাংসদ। তবে তিনি সতর্ক করে বলেন, এটি যেনো শুধুমাত্র নির্বাচনের কথা মাথায় রেখেই না আনা হয়।

রাউতের বক্তব্য, বিহারে এনডিএ শরিক নীতীশ কুমার জন্মনিয়ন্ত্রণ বিলের বিরোধিতা করেছেন। এক্ষেত্রে তাঁর পরামর্শ নিতীশ সরকারের উপর থেকে বিজেপির সমর্থন প্রত্যাহার করুক।

নিজের কলামে সঞ্জয় দাবি করেছেন, “১৯৪৭ সালে দেশ ভাগের পর হিন্দুরা বাধ্য হয়েছে ধর্মনিরপেক্ষ হিসেবে থাকতে। আর মুসলিমদের ধর্মীয় স্বাধীনতা দেওয়া হয়েছে।” তিনি লিখেছেন,”এই মানুষরা জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণে বিশ্বাসী নয়। তাদের স্বাধীনতার নীতি মানে হলো অনেক বিয়ে হবে আর অনেক বাচ্চার জন্ম দেবে তারা। অবশ্য এরা অশিক্ষিত এবং বেকার।” শিবসেনা নেতা দাবি করেছেন, দেশের আট রাজ্য এবং দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের হিন্দুরা সংখ্যালঘু হয়ে গিয়েছে। তার কারণ হিসেবে বেআইনি অনুপ্রবেশকেই দায়ী করেছেন তিনি। তার অভিযোগ অসম, পশ্চিমবঙ্গ, বিহারের ডেমোগ্রাফি বদলে যাচ্ছে।

উত্তরপ্রদেশে জনসংখ্যা নীতি প্রণয়নের প্রসঙ্গে রাউত লিখেছেন, এর প্রভাব বিশ্লেষণ করা দরকার এবং এরপর রাষ্ট্রীয় স্তরে তার চর্চার প্রয়োজন। তিনি লেখেন, উত্তরপ্রদেশ ও বিহারের অত্যধিক জনসংখ্যা অন্য রাজ্যকেও প্রভাবিত করে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here