ভারতে হিন্দুরাও নিরাপদ নয়, উদয়পুর কাণ্ডে তসলিমার টুইট, প্রতিক্রিয়া বিভিন্ন মহলে

আমাদের ভারত, ২৯ জুন: রাজস্থানের হত্যার ঘটনার নিন্দা হচ্ছে সব মহলে। ঘটনায় এনআইএ তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্র। এ নিয়ে মন্তব্য করলেন তসলিমা নাসরিন। টুইটে একটি বিস্ফোরক বার্তা দিয়েছেন তিনি। মৌলবাদী আগ্রাসনের বিরুদ্ধেও সরব হয়েছেন তসলিমা নাসরিন।

টুইট বার্তায় এই প্রসঙ্গ উত্থাপন করে তসলিমা নাসরিন লেখেন, “ ধর্মান্ধরা সমাজের পক্ষে এতটাই বিপজ্জনক যে ভারতে হিন্দুরাও নিরাপদ নয়। শুধু অমুসলিম নয়, প্রগতিশীল মুসলিম এবং মুক্তমনাদেরও জিহাদিরা শিরচ্ছেদ করতে পারে। ধর্মীয় উগ্রবাদ সবসময় মানবতার জন্য ক্ষতিকর।”

তাঁর এই মন্তব্য নিয়ে শুরু হয়েছে বিতর্ক। একটি দৈনিক সংবাদপত্রের অনলাইনে এই মন্তব্য ফেসবুকে পোস্ট করার এক ঘন্টা বাদে লাইক, মন্তব্য ও শেয়ারের সংখ্যা হয়েছে যথাক্রমে ৪১৭, ৯৪ ও ১২।

ফাহিম ফয়সাল লিখেছেন, “এই মহিলা কি বললো তাতে কিচ্ছু যায় আসে না। এ একটা উন্মাদ, এর কথা কেউ সিরিয়াসলি নেবেন না। যখন যেটা বলার দরকার এ তখন সেটাই বলে।“ ধীরেন গড়ঙ্গ লিখেছেন, “মাননীয়ার প্রতি সম্মান জানিয়ে বলতে চাই- আপনি যেটা জানেন বা বোঝেন সেটাই শেষ নয় , তারপরও বলার থাকে। মুক্তমনার প্রকৃত অর্থ ব্যক্তি বিশেষে নানারূপ অর্থাৎ মতভেদ আছে। যে শব্দে দেশের বা দশের ঐক্যবদ্ধতায় আঘাত হানে তা থেকে দূরত্ব বজায় রাখাই পাথেয়।“

অন্যদিকে, পিয়াসা চৌধুরী লিখেছেন, “তসলিমা নাসরিনকে বোঝা সাধারণ মানুষের কাজ নয়। উনি ভীষণ উন্নত এবং উর্বর মস্তিষ্কের মানুষ। তা অনুর্বর জিহাদি মানসিকতার মানুষদের বোঝার নয়। সরি!“

দেবাশিস সরকার লিখেছেন, “মোটেও ভুল কিছু বলেননি। বর্তমান কিছু ঘটনা সে দিকেই তো আঙ্গুল দেখাচ্ছে।“ শুভ্রাংশু বসু লিখেছেন, “পরিস্থিতি সেই দিকেই তো যাচ্ছে… কতটা সহ্য করবে মানুষ?“

সুজয় হালদার লিখেছেন, “ভারতে ওরা যেটা করলো তার জন্য কোনো আইনই ওদের জন্য যথেষ্ট নয়। চিনা পন্থা নেওয়া উচিত।“

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here