রায়গঞ্জে পণের বলি গৃহবধূ, পিটিয়ে খুনের অভিযোগ স্বামী সহ শ্বশুর বাড়ির বিরুদ্ধে

স্বরূপ দত্ত, আমাদের ভারত, উত্তর দিনাজপুর, ২৯ জুন: ফের পণের শিকার হল এক গৃহবধূর। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর দিনাজপুর জেলার রায়গঞ্জ থানার ধোওয়াবিশুয়া গ্রামে। মৃতা গৃহবধূর নাম আদরি খাতুন
(২১)। অভিযুক্ত স্বামী হুসেন আলি সহ শ্বশুর শাশুড়ি পলাতক। মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য রায়গঞ্জ গভর্মেন্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানোর পাশাপাশি ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে রায়গঞ্জ থানার পুলিশ।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বছর দুয়েক আগে বিয়ে হয় রায়গঞ্জ থানার ধোওয়াবিশুয়া গ্রামের হুসেন আলির সঙ্গে আদরি খাতুনের। বিয়ের কয়েক মাস পর থেকেই স্বামী হুসেন আলি ও তার পরিবারের লোকেরা আদরিকে বাড়ি থেকে টাকা আনার জন্য চাপ দিতে থাকে। গরিব ঘরের মেয়ে আদরি দাবি মতো টাকা পয়সা আনতে না পারায় তাঁর উপর শ্বশুর বাড়ির লোকজন শারীরিক অত্যাচার চালাত বলে অভিযোগ। রবিবার রাতে আদরিকে ব্যাপক মারধর করে হুসেন ও গৃহবধূর শ্বশুর শাশুড়ি। গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়ে আদরি। এরপরই হুসেন সহ পরিবারের লোকেরা পালিয়ে যায়। আদরির বাপের বাড়ির লোকজন তাকে উদ্ধার করে রায়গঞ্জ গভর্মেন্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। সোমবার দুপুর নাগাদ মৃত্যু হয় আদরির। এই ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে।

আদরিকে পিটিয়ে খুন করার অভিযোগ তুলে রায়গঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করে তাঁর পরিবার। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে রায়গঞ্জ থানার পুলিশ।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here