বর্ষবরণে যাদবপুরে রুফটপ পার্টিতে ছাদ থেকে পড়ে মৃত্যু গৃহবধূর, স্বামীর বক্তব্যে ধোঁয়াশা

26

সৌভিক বন্দ্যোপাধ্যায়, কলকাতা, ১ জানুয়ারি:
বর্ষবরণের রাতে যাদবপুরের পোদ্দারনগরে রহস্যমৃত্যু হল এক গৃহবধূর। বুধবার সকালে যাদবপুরের পোদ্দারনগর থেকে উদ্ধার হয়ে সুইটি সূত্রধর নামে ওই মহিলার রক্তাক্ত দেহ। সারারাত ধরে পার্টি চললেও সকালে কেন ওই মহিলার দেহ নজরে এল তা নিয়ে ইতিমধ্যেই তৈরি হয়েছে ধোঁয়াশা।

পুলিশ সূত্রে খবর, সুইটিদেবী যে আবাসনের বাসিন্দা, সেখানে মঙ্গলবার রাতে সেখানকার পাঁচতলার ছাদে ছিল বর্ষবরণের পার্টি। ছিল উদ্দাম খাওয়া-দাওয়া এবং পানীয়ের আসর। পার্টিতে হাজির ছিলেন সুইটি এবং তাঁর স্বামী কুন্তল বলে দাবি বাসিন্দাদের। কিন্তু দেহ উদ্ধারের পর সুইটি স্বামী কুন্তল পুলিশকে জানান তিনি আদৌ ওই পার্টিতে ছিলেন না। আবাসনের বাসিন্দারা এবং সুইটি স্বামীর পরস্পরবিরোধী মন্তব্যে তৈরি হয়েছে রহস্য।

বুধবার সকালে আবাসনের নীচ থেকেই উদ্ধার হয় মহিলার দেহ। তদন্তে নেমেছে যাদবপুর থানার পুলিশ। টাল সামলাতে না পেরে সুইটি নিজেই ছাদ থেকে পড়ে গিয়েছিলেন, নাকি তাঁকে কেউ ধাক্কা মেরেছিল, সবটাই খতিয়ে দেখছেন তদন্তকারী আধিকারিকরা। সবাই তার উপস্থিতির কথা বললেও কেন সুইটির স্বামী নিজে অস্বীকার করছেন? সেটাই তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে জানার চেষ্টা করছে পুলিশ। এছাড়া পড়ে যাওয়ার সময় সুইটি মদ্যপ ছিলেন কিনা অথবা তাকে ধাক্কা মেরে ছিল কিনা তা জানতে তার দেহের ময়না তদন্ত করা হচ্ছে।

বুধবার দেহ উদ্ধারের পর ঘটনাস্থলে গিয়েছিল গোয়েন্দা বিভাগের হোমিসাইড শাখা এবং ফরেন্সিক বিশেষজ্ঞদের দল। ওই আবাসনের রুফটপ যারা যারা উপস্থিত ছিলেন তাদের সকলকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। এটি একটি সাধারণ দুর্ঘটনা নাকি পার্টির আড়ালে চাপা দেওয়া হচ্ছে কোনও অপরাধ, সেটাই জানার চেষ্টা করছে পুলিশ।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here