গোপনাঙ্গে অতিরিক্ত সেভ করলে হতে পারে বিপদ

গোপনাঙ্গে অতিরিক্ত সেভ করলে হতে পারে বিপদ

আমাদের ভারত ডেস্ক, ২৮ মার্চ: গোপনাঙ্গে অতিরিক্ত সেভ করা ভালো না খারাপ এ বিষয়ে বিভিন্ন মত রয়েছে। এ নিয়ে গবেষণাও চলছে। সম্প্রতি এক গবেষণার তথ্য প্রকাশিত হয়েছে। গবেষকরা জানিয়েছেন, যাঁরা গোপনাঙ্গে ঘন ঘন সেভ করেন তাদের বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা তৈরি হয়।
তবে, ঘন ঘন সেভ করা ক্ষতিকর হলেও একেবারে যে সেভ করা যাবে না তা নয়। গবেষকরা বলছেন প্রতি বছর ১১ বার করে সেভ করা যেতে পারে গোপনাঙ্গের চুল। আর এর বেশি হলেই ক্ষতি হতে পারে। ঘন ঘন সেভ করলে কী ক্ষতি হতে পারে? এ প্রসঙ্গে গবেষকরা বলছেন এসটিআই বা সেক্সুয়াল ট্রান্সমিটেড ইনফেকশন হওয়ার আশঙ্কা অনেক বেড়ে যেতে পারে।
গবেষকরা এ বিষয়ে তাদের অনুসন্ধানের তথ্য সেক্সুয়ালি ট্রান্সমিটেড ইনফেকশন জার্নালে তাঁদের গবেষণার তথ্য প্রকাশ করেছেন। গবেষকরা জানিয়েছেন, যারা ঘন ঘন যৌনাঙ্গের ও আশপাশের অংশের চুল সেভ করেন তাদের এসটিআই হওয়ার আশঙ্কা ৮০ শতাংশ বেশি।

এই গবেষণায় ৭,৫৮০ জন প্রাপ্তবয়স্ক মার্কিন নাগরিককে নিয়ে গবেষণা করা হয়। এতে দেখা যায়, যারা ঘন ঘন যৌনাঙ্গের ও আশপাশের অংশের চুল সেভ করেন তাদের মধ্যে সংক্রমণের হার বেশি। তাই যারা যত বেশি সেভ করেন তাদের এই ধরনের সংক্রমণে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা তত বেশি হবে।

সম্প্রতি যৌনাঙ্গের আশপাশের চুল সেভ করার প্রবণতা বৃদ্ধি পেয়েছে তিনটি কারণে- খেলাধুলা, পর্নের প্রভাব ও যৌনতা। আর বর্তমানে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন ও সুস্থতার ক্ষেত্রে অনেকেই সেভ করাকে বেশ ভালো মনে করছেন। যদিও বিষয়টি বাস্তবে তেমন নয়। প্রতি বছর ১১ বারের কম সেভ করলেই যথেষ্ট বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

18 + fourteen =