রামপুরহাট মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ইন্টারভিউ দিতে পারলেন না শতাধিক চাকরি প্রার্থী

আশিস মণ্ডল, রামপুরহাট, ২ জুলাই: হাসপাতালের শূন্য পদে নিয়োগের ইন্টারভিউ দিতে না পেরে ক্ষুব্ধ শতাধিক চাকরি প্রার্থী। দূরদূরান্ত থেকে আসা তরুণ তরুণীরা হতাশ হয়ে ফিরে যান। ইন্টারভিউয়ের স্বচ্ছতা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন তারা।

বৃহস্পতিবার রামপুরহাট মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে তিনটি বিভাগে ছটি শূন্যপদ ছিল। শতাধিক তরুণ তরুণী আবেদন করেন। সাড়ে দশটায় ছিল হাজিরার সময়। কিন্তু কেউ কেউ সামান্য দেরিতে আসায় তাদের ইন্টারভিউয়ে বসার সুযোগ দেওয়া হয়নি। নির্দিষ্ট সময়ে গেট বন্ধ করে দেওয়ায় বহু তরুণ তরুণী মেডিক্যাল কলেজের বাইরে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন। পরে হতাশ হয়ে তারা ফিরে যান।

তারাপীঠ থানার সাহাপুর গ্রামের স্বর্ণদ্বীপ বসু বলেন, “এদিন মেডিক্যাল কলেজে সাড়ে দশটায় রিপোর্টিং টাইম দেওয়া হয়। কিন্তু কলেজ কর্তৃপক্ষ তার আগেই আঙ্গুলে গোনা কয়েকজনকে ভিতরে ঢুকিয়ে গেট বন্ধ করে দেয়। ফলে অধিকাংশ চাকরি প্রার্থী ইন্টারভিউয়েই বসার সুযোগ পেলেন না। কলেজ কর্তৃপক্ষ আমাদের সঙ্গে প্রতারণা করেছে”। গোপীনাথ মণ্ডল বলেন, “নির্দিষ্ট সময়ে আমরা ঢোকার জন্য লাইনে দাঁড়িয়ে ছিলাম। কিন্তু সাড়ে দশটা বাজতেই গেট বন্ধ করে দেওয়া হল। লাইনে দাঁড়িয়ে থাকা সত্ত্বেও ভিতরে ঢুকতে দেওয়া হল না”। বর্ধমানের ব্রততী যশ বলেন, “১২ টায় ইটারভিউ অথচ সাড়ে দশটায় গেট বন্ধ করে দেওয়া হল। এখানে ইন্টারভিউয়ের নামে প্রতারণা করা হল”।

এদিকে চাকরি প্রার্থীরা দীর্ঘক্ষণ বাইরে দাঁড়িয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে কোনও সদুত্তর না পেয়ে হতাশ হয়ে ফিরে যান। কলেজের প্রিন্সিপ্যাল সুজিত কুমার দে বলেন, “নির্দিষ্ট সময়ে যারা পৌঁছতে পেরেছে তাদেরই ইন্টারভিউয়ে বসার সুযোগ দেওয়া হয়েছে। যারা আসতে পারেননি তারা সেই সুযোগ পাননি”।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here