কলেজের অস্থায়ী কর্মীদের আমরন অনশন সিউড়িতে

আশিস মণ্ডল, সিউড়ি, ১৩ অক্টোবর: সুনির্দিষ্ট বেতন কাঠামো তৈরি সহ একাধিক দাবিতে সিউড়ি বিদ্যাসাগর কলেজের অস্থায়ী শিক্ষাকর্মীদের আমরণ অনশন মঙ্গলবার দ্বিতীয় দিনে পড়ল। দাবি পূরণ না হওয়া পর্যন্ত অনশন চলবে বলে পরিষ্কার জানিয়ে দেওয়া হয়েছে সংগঠনের পক্ষ থেকে। সুনির্দিষ্ট বেতন কাঠামো, ৬০ বছর পর্যন্ত চাকরি সুনিশ্চিৎ করা এবং অবসরকালীন ভাতা প্রদানের দাবি-দাওয়া নিয়ে সোমবার থেকে অনশন কর্মসূচি পালন শুরু করে অস্থায়ী কর্মীরা। পশ্চিমবঙ্গ কলেজ ক্যাজুয়াল এমপ্লয়িজ সমিতির অস্থায়ী শিক্ষক কর্মী ব্যানারে সিউড়ি বিদ্যাসাগর কলেজ গেটের সামনে অনশন শুরু করা হয়। ৪০-৫০ জন অস্থায়ী শিক্ষাকর্মী এদিনও অনশন মঞ্চে উপস্থিত হয়েছিলেন। যতদিন না তাদের দাবি মানা হবে তারা এভাবেই অনশন চালিয়ে যাবে বলে জানানো হয়েছে সংগঠনের পক্ষ থেকে।

সংগঠনের কার্যকারী সভাপতি অরুণ চট্টোপাধ্যায় বলেন, “আমরা বীরভূম জেলায় বিভিন্ন কলেজ ১০-২০ বছর ধরে কাজ করছি। তা সত্ত্বেও সরকারের কাছ থেকে চাকরিতে স্থায়ীকরণের কোনও নিশ্চয়তা পাইনি। আমরা এর আগে নবান্নে গিয়ে শিক্ষা মন্ত্রীকে জানিয়ে এসেছি। তিনি রাজ্যের অস্থায়ী কর্মীদের তালিকা চেয়েছিলেন। আমরা জমা দিয়েছি। কিন্তু সরকার আমাদের স্থায়ী করণ নিয়ে কিছু ভাবেনি। আমরা চাইছি উচ্চ শিক্ষায় অস্থায়ী কর্মীদের জন্য সরকারি যে আদেশনামা রয়েছে তা লাগু করা হোক। কলেজের পরিচালন সমিতি আমাদের বিভিন্ন সময় বিভিন্ন কাজে নিয়োগ করেছে। কিন্তু বেতন সামানই। আমরা হতাশ হয়ে অনশনে বসেছি। কারণ মানবিক মুখ্যমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করতে। আমাদের আবেদন বিষয়টা সহানুভূতির সঙ্গে দেখুন। যতক্ষণ সরকারের কাছ থেকে সদুত্তর পাচ্ছি ততদিন আন্দোলন চলবে”।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here