আমি অন্য ধাতুর মানুষ, দুবার প্রধানমন্ত্রী হলেও এখুনি বিশ্রাম নয়, তৃতীয় বার প্রধানমন্ত্রী হবার লক্ষ্য স্থির”, ইঙ্গিত নিজেই দিলেন মোদী

আমাদের ভারত, ১৩ মে: ২০২৪-এ নরেন্দ্র মোদীকেই মোকাবিলা করতে হবে বিরোধীদের। চব্বিশের লড়াইয়ে বিজেপির নেতা বদলের কোনো ইঙ্গিত নেই বরং আরো কিছুদিন দেশকে নেতৃত্ব দিতে চান নরেন্দ্র মোদী সেই ইঙ্গিত নিজেই দিলেন তিনি।

২০২৪-এর লড়াইয়ে বিজেপি অন্য কাউকে কি তুলে ধরবে এই প্রশ্ন ইতিমধ্যেই উঠতে শুরু করেছে। আবার এই প্রশ্নও উঠেছে যে, কে হবেন মোদীর বিকল্প। কিন্তু স্বয়ং মোদী নিজের কথার মাধ্যমে যে ইঙ্গিত দিয়েছে তাতে স্পষ্ট ২৪-এর লোকসভাতে তার নেতৃত্বেই বিজেপি লড়াইয়ের ময়দানে নামতে চলেছে।

বৃহস্পতিবার গুজরাট সরকারের একাধিক প্রকল্পের উদ্বোধন করেন নরেন্দ্র মোদী। ওই অনুষ্ঠানে প্রতিটি মানুষের কাছে সরকারি প্রকল্পের সুবিধা পৌঁছে দেওয়ার বিষয়ে সরব হন তিনি। মোদী বলেন, ১০০ ভাগ মানুষের কাছে ১০০ ভাগ সুবিধা পৌঁছে দেওয়াই তার সরকারের লক্ষ্য। আর এই লক্ষ্য পূরণের মধ্য দিয়েই বঞ্চনা ও তোষণের অবসান ঘটাতে চায় তার সরকার।

এই অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি বলেন, “কিছুদিন আগে বিরোধী শিবিরের এক বড় নেতা আমার সঙ্গে দেখা করতে এসেছিলেন। সেই নেতাকে আমি খুব পছন্দ করি এবং শ্রদ্ধাও করি। উনি কথায় কথায় আমাকে জিজ্ঞাসা করেন মোদীজী আপনি দুবার প্রধানমন্ত্রী হয়েছেন এরপর কি পরিকল্পনা আপনার?” মোদী বলেন, “আমি ওই নেতাকে বললাম ১০০ ভাগ নাগরিকের কাছে ১০০ ভাগ সরকারি সুবিধা পৌঁছে না দেওয়া পর্যন্ত আমার বিশ্রাম নেওয়ার প্রশ্নই ওঠে না।”

এরপর মোদী আরোও বলেন, “আসলে ওই নেতা জানেন না আমি অন্য ধাতুর মানুষ। এই গুজরাতের ভূমিতে আমি বড় হয়েছি। আমার লক্ষ্য হলো পূর্ণতা। ১০০ ভাগ লক্ষ্যপূরণ আর তার জন্য সরকারি প্রশাসনকে ১০০ ভাগ জনমুখী করে তোলাই আমার লক্ষ্য।” প্রধানমন্ত্রীর এই বক্তব্য থেকেই অনেকে মনে করছেন তৃতীয়বার প্রধানমন্ত্রী হওয়ার ইঙ্গিত নিজেই দিয়েছেন মোদী।

মোদী তার নিজের কাজ করার পদ্ধতি নিয়ে বলেন, “২০১৪-তে প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর এমন কিছু কাজে হাত দিয়েছি যা দেশকে বদলে দিয়েছে। তখন অর্ধেক দেশবাসী শৌচালয়, ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট, বিদ্যুৎ ইত্যাদি থেকে একশো মাইল দূরে ছিল। কিন্তু এখন অবস্থা পাল্টেছে। তিনি বলেন, এমন কিছু কাজ আমি করেছি যা থেকে রাজনীতিবিদরা সাধারণত দূরে থাকতে চান। কিন্তু আমি উন্নয়ন নিয়ে রাজনীতি করতে আসিনি। তিনি বলেন, জনসভা এবং দেশসেবা তার ব্রত।

তাঁর কথায়, “একবার খবর এলো আমার জীবন নিরাপদ নয়। নিরাপত্তা বিপন্ন হতে পারে। একবার খবর ছড়িয়ে পড়ল আমি নাকি গুরুতর অসুস্থ। আমি বললাম আমার উপর কোটি কোটি মায়ের আশীর্বাদ আছে। আমার ক্ষতি কেউ করতে পারবে না।” এই সব কথাকেই স্পষ্ট ইঙ্গিত বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা যে আরোও একদফা প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নির্বাচিত হতে নিজেই ব্যাট ধরেছেন মোদী।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here