ভালো লোকেদের জন্য বদল চাই আর সমাজবিরোধীদের জন্য বদলা চাই: জয়

আমাদের ভারত, হাওড়া, ২১ জুন: সিপিএম জমানায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছিলেন বদলা নয় বদল চাই আর উনি বদল এনেছেন তবে সেটা ভালো মানুষদের জন্য নয়। সিপিএমের আমলে বিরোধীদের ছুরি দিয়ে মারা হতো এখন তরোয়াল দিয়ে মারা হয়, আগে গাদা বন্দুক দিয়ে মারা হতো এখন অটোমেটিক রিভলবার দিয়ে মারা হয়, আগে বাঁশ দিয়ে মারা হতো এখন ইলেকট্রিক পোস্টে বেঁধে মারা হয় এটাই তৃণমূলের জমানায় বদল এসেছে। আর সেই জন্যই আমরা চাই ভালো মানুষদের জন্য বদল এবং সমাজবিরোধীদের জন্য বদলা। রবিবার উলুবেড়িয়া পৌরসভার ২৯ নং ওয়ার্ডের নিমদিঘিতে বিজেপির গৃহ সম্পর্ক অভিযান এবং শহিদ জওয়ানদের শ্রদ্ধা জানাতে এসে এই কথা বলেন বিজেপি নেতা জয় বন্দ্যোপাধ্যায়।

এদিন জয় বন্দ্যোপাধ্যায় বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের বক্তব্যকে সমর্থন করে বলেন, রাজ্যে অনেক ভালো মানুষ আছে আমরা তাদের জন্য বদল আনব আর যে সমস্ত তৃণমূল নেতা নেত্রী ও কর্মীরা আমাদের কর্মীদের হত্যা করছে ও আহত করছে তাদের জন্য আমরা বদলা আনব। তাই আমরা বলছি ভালো লোকেদের জন্য বদল চাই এবং সমাজবিরোধীদের জন্য বদলা চাই। জয় বলেন, আমরা যখন শহিদ পরিবারের পাশে দাঁড়াই তাদের কান্না শুনে থাকতে পারি না, তাই দীলিপবাবু বলেছেন আমরা যেরকম বদল চাই সেই রকম বদলাও চাই।

অন্যদিকে কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে সারেন্ডার প্রধানমন্ত্রী বলায় এদিন রাহুলকে কটাক্ষ করে জয় বলেন, যখন যুদ্ধের সময় হয় বা দেশে যখন কোনও সমস্যার সৃষ্টি হয় তখন রাজনীতি ভুলে দেশাত্মবোধ জেগে ওঠে মানুষের মধ্যে, এটা রাহুল গান্ধী ভুলে গেছে তাই নরেন্দ্র মোদীকে সারেন্ডার প্রধানমন্ত্রী বলেছেন। নরেন্দ্র মোদী সারেন্ডার প্রধানমন্ত্রী নয় দেশের শত্রুদের জন্য তিনি বুলডোজার প্রধানমন্ত্রী বলে দাবি করেন জয় বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিন জয় বলেন, যখন দেশের ৪২ জন সৈন্য মারা গিয়েছিল এয়ার স্ট্রাইক করে ওদের খতম করে দেওয়া হয়েছিল আর আজ রাজনাথ সিং সেনাদের অর্ডার দিয়ে দিয়েছে যে কোনও উপায়ে আঘাত করতে পারো এবং আঘাত রুখতেও পারো। রাহুল গান্ধী এটা ভুলে গেছে তাই আমার মনে হয় রাহুল গান্ধী রাজনীতির সহজপাঠ পড়েনি এবং ওনার উচিত এটা পড়ে নেওয়া। এদিন জয় বলেন, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর জনপ্রিয়তা যখন সারাবিশ্বে তুঙ্গে তখন ওনাকে সারেন্ডার প্রধানমন্ত্রী বলে রাহুল গান্ধী নিজেকে এবং পরিবারকে অসম্মানিত করেছেন। রাহুল গান্ধীর সভাপতিত্বে জমানায় কংগ্রেসের সবথেকে বেশি অধঃপতন হয়েছে বলেও এ দিন দাবি করেন জয় বন্দ্যোপাধ্যায়।

এদিন জয় গৃহ সম্পর্ক অভিযানে বাড়ি বাড়ি ঘুরে প্রচার করা ছাড়াও শহিদ জওয়ানদের স্মৃতির উদ্দেশ্যে পুষ্পার্ঘ্য নিবেদন করেন এবং চীনের প্রেসিডেন্টের কুশপুতুল দাহ করেন।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here