পরিবারের কেউ বাইরে আটকে থাকলে, রেশন ঠিকমতো না-পেলে বলুন, ব্যবস্থা করব : সৌরভ

চিন্ময় ভট্টাচার্য, আমাদের ভারত, কলকাতা, ৭ এপ্রিল: ভিনরাজ্যে কাজ করতে গিয়ে পরিবারের কেউ আটকে পড়েছে? খাবার অথবা জলের মতো নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্র পাচ্ছেন না? মাথাগোঁজার জায়গা পাচ্ছেন না। এই বিপদে রাজ্যের সেই সব বাসিন্দাদের কাছে সাহায্য পৌঁছে দেবে ছাত্র পরিষদ। এর মধ্যে বহু লোক যোগাযোগ করে উপকৃতও হয়েছেন। এমনই জানিয়েছেন ছাত্র পরিষদের রাজ্য সভাপতি সৌরভ প্রসাদ।

শুধু আশ্বাস দেওয়াই নয়। তাঁরা যে সত্যিই এই সব সাহায্য করছেন, তার প্রমাণ হিসেবে ভিডিও ফুটেজও সৌরভ সংগ্রহ করে রেখেছেন। এই ব্যাপারে তাঁর বক্তব্য, ‘আমরা সর্বভারতীয় সংগঠন। তাই কোনও রাজ্যে সাহায্য পৌঁছে দিতে আমাদের কোনও অসুবিধা হচ্ছে না। দরকার হলে আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করেই দেখুক, আমি সত্যি বলছি কি না।’


ভিন রাজ্যে আটকে থাকা এ রাজ্যের শ্রমিকরা

শুধু ভিনরাজ্যে অসহায় রাজ্যবাসীর কাছে সাহায্য পৌঁছে দেওয়াই নয়, সৌরভ জানান, সরকার অনেককিছু ঘোষণা করলেও এরাজ্যে বিভিন্ন রেশন দোকানগুলোয় চূড়ান্ত নয়ছয় চলছে। সাধারণ মানুষ তাঁদের প্রাপ্যটুকু পাচ্ছেন না। তার ওপর বহু মানুষই জানেন না, তাঁদের ঠিক কতটুকু প্রাপ্য। এই পরিস্থিতিতে সাধারণ মানুষকে সাহায্য করতে প্রতি জেলায় হেল্পলাইন নম্বর চালু করেছে ছাত্র পরিষদ। যোগাযোগ করলেই ছাত্র পরিষদের সদস্যরা জানিয়ে দিচ্ছেন, রেশন দোকানে সাধারণ মানুষের ঠিক কতটুকু প্রাপ্য।


কংগ্রেসের ছাত্র সংগঠনের রাজ্য সভাপতি সৌরভের আশ্বাস, রেশনে বঞ্চিত হলে যদি রাজ্যের কেউ যোগাযোগ করেন, তাঁরা সমস্ত সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেবেন। ছাত্র পরিষদের সদস্যরা এই সাহায্য করার জন্য জেলাভিত্তিক বিশেষ টিম তৈরি করে ফেলেছেন। রেশনে প্রাপ্য থেকে যাতে সাধারণ মানুষ বঞ্চিত না-হন, তার যাবতীয় ব্যবস্থা সরাসরি গিয়ে সেই টিমের সদস্যরাই করবেন।

কিন্তু, এগুলো তো রাজনৈতিক দলের কাজ। ছাত্র পরিষদ তো ছাত্র সংগঠন। তারা করছে কেন? এই সম্পর্কে কংগ্রেসের ছাত্র সংগঠনের রাজ্য সভাপতির সোজা কথা, ‘আমাদের সংগঠনের বহু ছেলেমেয়ে একদিকে রোজগারও করে আবার নিজের টাকা দিয়ে লেখাপড়াও করে। তাঁদেরও সাহায্য দরকার। তাই আমরা এই সব ব্যাপারে শুধুমাত্র ছাত্র সংগঠন বলে দায় এড়াতে পারি না।’

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here